Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৪৯
নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা সিটি নির্বাচন ডিসেম্বরে
দলভিত্তিক সিটি ভোটের বিধি আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে ইসি
গোলাম রাব্বানী

আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে ভোটের পরিকল্পনা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লায় ভোট সামনে রেখে নির্বাচন বিধিমালা ও আচরণবিধির সংশোধনী প্রস্তাবে মতামতের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। সিটি মেয়র পদে দলীয়ভাবে নির্বাচন হবে এবার। এ অবস্থায় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক বা সমমনা ব্যক্তির প্রত্যয়নে দলীয় প্রার্থী, স্বতন্ত্র প্রার্থিতায় ৩০০ ভোটারের সমর্থন তালিকা দেওয়া, মন্ত্রী-এমপি-মেয়রদের প্রচারণায় নিষেধাজ্ঞা, সংরক্ষিত নারী প্রার্থীদের প্রতীকে সংশোধন এনে খসড়া দুটি বিধি করা হয়েছে। গতকাল ইসির আইন শাখার জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব আন্তরা ঘোষ বলেন, ‘নির্বাচন বিধি ও আচরণবিধি সংশোধনে ইসির অনুমোদনের পর আইন মন্ত্রণালয়ে ভেটিংয়ের জন্য পাঠিয়েছি আমরা। এ বিষয়ে মতামত ও মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের পরই সংশোধিত বিধির গেজেট প্রকাশ করা হবে।’ এই কর্মকর্তা জানান, সেপ্টেম্বরের মধ্যে নির্বাচনবিধি ও আচরণবিধির সংশোধিত গেজেট প্রকাশ করা হতে পারে। বিধি দুটি জারির পর ভোটের তফসিলের ব্যবস্থা নেবে ইসি। একজন নির্বাচন কমিশনার জানান, ‘আমরা ডিসেম্বরে দুই সিটিতে ভোট করার পরিকল্পনা নিয়েছি। দুই সিটিতে একই দিন ভোটের চিন্তা করা হচ্ছে।’ এদিকে অক্টোবরের মধ্যে বিধি সংশোধন কাজ শেষ করে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি শেষে নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে হাত দিতে চায় ইসি। স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষা শেষে তফসিল করে ডিসেম্বরের দ্বিতীয়ার্ধকে ভোটের উপযুক্ত সময় বিবেচনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয় শাখার সহকারী সচিব জানান, দুটি সিটিতেই নির্বাচন উপযোগী হয়েছে। এ ক্ষেত্রে ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ ও ৬ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কুমিল্লায় ভোট করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এ দুটি নির্বাচন এক দিনে করার পরিকল্পনা করেই কাজ এগোচ্ছে। পৌরসভায় মেয়র পদে স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচনে অংশ নিলে ১০০ ভোটারের সমর্থন দেখাতে হয়। ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচনের জন্য ভোটারের সমর্থন দেখানোর শর্ত রাখা হয়নি। এদিকে সিটি নির্বাচনের আচরণবিধিতেও সংশোধন আনা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে মন্ত্রী ও তাদের সমপদমর্যাদাসম্পন্ন ব্যক্তি, সংসদ সদস্য, সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে পারবেন না— এমন বিধান রাখা হচ্ছে। আগামী ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে ইসি।

up-arrow