Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:২৬
কুবির দগ্ধ ছাত্রী নিশার মৃত্যু
১৩ দিনেও বিস্ফোরণের কারণ জানা যায়নি
কুমিল্লা প্রতিনিধি

রহস্যজনক বিস্ফোরণে দগ্ধ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ছাত্রী ফাহমিদা হাসান নিশা ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে মারা গেছেন। ১৩ দিন পর রবিবার গভীর রাতে তার মৃত্যু হয়। নিশা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার আকছিনা গ্রামের আবু হাসানের মেয়ে। গতকাল দুপুরে ময়নাতদন্ত শেষে সন্ধ্যায় পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন হয়েছে। এসব তথ্য জানান নিহত নিশার মামা তারিকুল ইসলাম। জানা যায়, গত ২৩ আগস্ট ভোর ৬টার দিকে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন সালমানপুরে ‘প্রশান্তি’ নামের একটি  বেসরকারি ছাত্রী নিবাসের নিচতলায় বিস্ফোরণে নিশা দগ্ধ হন। এতে ওই ভবনের নিচতলার জানালার গ্রিল উড়ে যায়। বিস্ফোরণে গুরুতর আহত নিশাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুমিল্লা  মেডিকেল ও পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। ওই দিন গভীর রাতে জেলার সদর দক্ষিণ মডেল থানার এসআই শহীদুল বাশার দগ্ধ ছাত্রী ফাহমিদা হাসানকে এক নম্বর আসামি করে আরও দুই ছাত্রীর বিরুদ্ধে সন্ত্রাস দমন আইনে মামলা করেন। অপর দুই আসামি হলেন কুবির ছাত্রী নুরুন্নাহার ও মর্জিনা আক্তার। তাদের তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই খাদেমুল বাহার জানান, বিস্ফোরণের কারণ সম্পর্কে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ঢাকা থেকে রাসায়নিক প্রতিবেদন আসার পরই বিস্ফোরণের কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

নিশার মামা তারিকুল ইসলাম বলেন, ‘কার কাছে বিচার চাইব, পুলিশ বিস্ফোরণের কারণ বের না করে উল্টো নিশাকেই মামলার আসামি করল।’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow