Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৫৬
নারায়ণগঞ্জ-কুমিল্লায় একই দিনে ভোটের প্রস্তুতি ইসির
গোলাম রাব্বানী
নারায়ণগঞ্জ-কুমিল্লায় একই দিনে ভোটের প্রস্তুতি ইসির

আগামী ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে একদিনে ভোট করার প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। দলীয়ভাবে এ নির্বাচনের জন্য বিধিমালাও সংশোধন করেছে ইসি। বর্তমানে তা আইন মন্ত্রণালয়ে ভেটিংয়ে রয়েছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে সিটি নির্বাচন বিধিমালার ভেটিংয়ের কাজ শেষ হতে পারে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশনের সংশ্লিষ্ট শাখা। এরপরে বিধিমালার গেজেট প্রকাশ করে তফসিলের জন্য প্রয়োজনীয় কার্যক্রম শুরু হবে। এক্ষেত্রে নভেম্বরের শুরুতে এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ডিসেম্বরে তৃতীয় সপ্তাহে ভোটগ্রহণ হতে পারে বলে ইসির দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন। পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের পর সিটি করপোরেশনে দলীয় প্রতীকে এটাই হবে প্রথম ভোট। কাজী রকিবউদ্দীন আহমেদের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বর্তমান ইসির মেয়াদের এটাই হবে শেষ নির্বাচন।

ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখার একজন কর্মকর্তা বলেন, ডিসেম্বরের মধ্যে নারায়ণগঞ্জে ভোট করতে হবে। এক্ষেত্রে কুমিল্লা-নারায়ণগঞ্জের ভোট একইদিনে হতে পারে। এতে আইনশৃঙ্খলাসহ নির্বাচন সামগ্রী প্রস্তুতের জন্য সুবিধা হবে। এক্ষেত্রে পরীক্ষা শেষে ডিসেম্বরের দ্বিতীয়-তৃতীয় সপ্তাহ ভোটের উপযুক্ত বিবেচনা করা যেতে পারে। ২০১১ সালের ৩০ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জে এবং ২০১২ সালের ৫ জানুয়ারি কুমিল্লায় ভোট হয়। ভোটের পর ২০১১ সালের ২৭ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ এবং ২০১২ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের জনপ্রতিনিধিদের প্রথম সভা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন নির্বাচন কমিশনার বলেন, বিদায়ের আগে এ দুটি সিটি নির্বাচন ভালোভাবে করতে চাই। যাওয়ার আগে যাতে কোনো সমালোচনা না হয় সেটাই করব আমরা। নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা একসঙ্গে করতে চাই। বছর শেষে পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী ও অষ্টম শ্রেণির জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষার সূচি বিবেচনায় নিয়ে নির্বাচনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। নির্বাচন কমিশন সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম বলেছেন, আমি চাইব দুই সিটিতে একইদিনে নির্বাচন হোক। ডিসেম্বরের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ ও ফেব্রুয়ারির মধ্যে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ডিসেম্বরে দুটি সিটিতে ভোট করতে চাইলে নভেম্বর মাসের মধ্যে এ দুই সিটির নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হতে পারে। তবে কমিশন বৈঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয় শাখার কর্মকর্তারা বলেছেন, প্রথম সভা থেকে পরবর্তী পাঁচ বছর মেয়াদ সিটি করপোরেশনের প্রতিনিধিদের।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow