Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:২৮
প্রাইমমুভার ধর্মঘটে কনটেইনার জট
বিপাকে গার্মেন্ট মালিকরা
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

তৃতীয়দিন পার হয়ে গেলেও প্রাইমমুভার ধর্মঘটের সুরাহা হয়নি। চট্টগ্রাম বন্দর থেকে কনটেইনারভর্তি কোনো পণ্য বাইরে যাচ্ছে না।

একইভাবে রপ্তানি পণ্যভর্তি কোনো কনটেইনারও বন্দরজেটিতে ঢুকছে না।   ফলে এই ধর্মঘটের কারণে দেশের আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যে স্থবিরতা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে তৈরি পোশাক শিল্প উদ্যোক্তারা বেশি বেকায়দায় পড়েছেন।

চিটাগাং চেম্বার ও পোর্ট ইউজার্স ফোরামের সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, দেশের অর্থনীতির চালিকাশক্তি হচ্ছে বন্দর, শিল্পকারখানা, আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য। এখন কনটেইনার পরিবহনের অপরিহার্য মাধ্যম হচ্ছে  ট্রেইলর। ২০-৪০ ফুট দীর্ঘ কনটেইনার কিংবা ভারী যন্ত্রপাতি আনা-নেওয়ার ক্ষেত্রে ট্রেইলরের বিকল্প নেই। মহাসড়কে ৩৩ টনের বেশি ওজন নিয়ে ট্রেইলর চলাচল করতে দেওয়া হচ্ছে না। তাই বলে সব  ধরনের কনটেইনার পরিবহন বন্ধ ঘোষণার অর্থ হচ্ছে অর্থনীতিকে জিম্মি করে দাবি আদায়।

প্রসঙ্গত, ৪০ ফুট দীর্ঘ কনটেইনারের ওজন ৩৩ টনের  বেশি হলে দাউদকান্দি ও মেঘনা সেতু পার হওয়ার অনুমতি না দেওয়ায় সোমবার সকাল থেকে ধর্মঘট শুরু করে প্রাইমমুভার ট্রেইলর মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ।

এদিকে ট্রেইলর ধর্মঘটের কারণে চট্টগ্রাম বন্দরে কনটেইনার জটের সৃষ্টি হয়েছে। ২০ ফুট দীর্ঘ ৩৬ হাজার ৩৫৭টি কনটেইনার ধারণক্ষমতার বন্দরে এখন তারও অধিক কনটেইনার রয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow