Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৬ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৫৭
স্বামীকে খুন করে স্ত্রী থানায়!
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের মাদামবিবির হাট এলাকার জাহাঙ্গীর আলম। পেশায় লরিচালক হলেও অনেকটা নেশাগ্রস্ত। অত্যাচার করতেন নিজ স্ত্রী দুই সন্তানের জননী খোদেজা বেগমকে (৩৫)। অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে স্ত্রী খোদেজা খুন করেন স্বামীকে। খুন করেই বিলম্ব নয়, হাজির হন থানায়। দায়িত্বরত পুলিশ অফিসারকে বলেন, ‘আমি আমার স্বামীকে খুন করেছি। আমাকে গ্রেফতার করুন।’

গত বুধবার গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। তাদের বাড়ি ফেনী জেলার দাগনভূঞা উপজেলায়। মাদামবিবির হাট এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে তারা থাকতেন। ১২ ও সাড়ে ৩ বছর বয়সী তাদের দুটি ছেলে আছে। সীতাকুণ্ড থানার ডিউটি অফিসার এসআই রেহানা আক্তার বলেন, স্বামীকে খুন করে খোদেজা গত বুধবার রাত ১টার দিকে নিজেই থানায় এসে ডিউটি অফিসারের রুমে গিয়ে বলেন, আমি আমার স্বামীকে খুন করে এসেছি। আমাকে গ্রেফতার করুন। রাত ২টার দিকে পুলিশ খোদেজাকে সঙ্গে নিয়ে তাদের বাসায় যায়। সেখানে একটি কক্ষ থেকে জাহাঙ্গীরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তিনি বলেন, জাহাঙ্গীর মদ খেয়ে বাসায় এসে প্রতি রাতে স্ত্রীকে মারধর করত। সন্তানদের সামনে গালাগাল করত। অপমান-নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে মঙ্গলবার ভোরে তাকে শিলপাটা দিয়ে মাথায় আঘাত করে খুন করে। এরপর স্বামীর মরদেহ প্রায় দুই দিন বাসার ভিতরে রেখে দেন খোদেজা। বুধবার গভীর রাতে জাহাঙ্গীরের পচন ধরা মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow