Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৯ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৩৯
লেবুখালীর পায়রা সেতু নির্মাণে বসুন্ধরা সিমেন্ট
নিজস্ব প্রতিবেদক
লেবুখালীর পায়রা সেতু নির্মাণে বসুন্ধরা সিমেন্ট
বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান ও লং জিয়ান রোড অ্যান্ড ব্রিজ কোং লিমিটেডের প্রকল্প ব্যবস্থাপক চেন উই গতকাল নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন —বাংলাদেশ প্রতিদিন

দেশের শীর্ষ শিল্পোদ্যোক্তা পরিবার বসুন্ধরা গ্রুপ উৎপাদিত বিশ্বের উন্নত মানের কাঁচামাল ও সর্বাধুনিক ভিআরএম প্রযুক্তিতে তৈরি বসুন্ধরা সিমেন্টে নির্মাণ করা হচ্ছে পটুয়াখালীর লেবুখালীতে পায়রা সেতু। ১ হাজার ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রায় দেড় কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এই সেতু নির্মাণে ব্যবহার করা হবে ৫০ হাজার টন (১০ লাখ ব্যাগ) বসুন্ধরা সিমেন্ট। এ উপলক্ষে বসুন্ধরা গ্রুপের সঙ্গে একটি করপোরেট চুক্তি স্বাক্ষর করেছে পায়রা সেতুর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান চীনের লং জিয়ান রোড অ্যান্ড ব্রিজ কোং লিমিটেড।

গতকাল বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহানের নিজ বাসভবনে এই চুক্তি স্বাক্ষর সম্পন্ন হয়। বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান এবং লং জিয়ান রোড অ্যান্ড ব্রিজ কোং লিমিটেডের প্রকল্প ব্যবস্থাপক চেন উই নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন। এই চুক্তির আওতায় ১ দশমিক ৪৭ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের পায়রা সেতু প্রকল্পে বসুন্ধরা সিমেন্ট ব্যবহার করা হবে। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লং জিয়ান রোড অ্যান্ড ব্রিজ কোং লিমিটেডের প্রধান প্রকৌশলী ট্যাঙ্গ ইয়াকুন, ফাইন্যান্স ব্যবস্থাপক বাউও হোঙ্গ ফু এবং বসুন্ধরা গ্রুপের জ্যেষ্ঠ উপব্যবস্থাপনা পরিচালক বেলায়েত হোসেন, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সিমেন্ট খাত) প্রকৌশলী এ কে এম মাহবুব-উজ্জামান, বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা ড. সাজ্জাদ হায়দার, গণমাধ্যম উপদেষ্টা আবু তৈয়ব ও উপদেষ্টা মাহবুব হায়দার খান, চিফ ফিনানশিয়াল ডেভেলপমেন্ট অফিসার তোফায়েল হোসেন, হেড অব সেলস খন্দকার কিংশুক হোসেন, বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সেক্রেটারি মাকসুদুর রহমান, ডিজিএম (টেকনিক্যাল সাপোর্ট) সরোজ কুমার বড়ুয়া, ডিজিএম (হেড অব সেলস) মাহমুদ হাসান প্রমুখ। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে লং জিয়ান রোড অ্যান্ড ব্রিজ কোং লিমিটেডের প্রকল্প ব্যবস্থাপক চেন উই বসুন্ধরা সিমেন্টের গুণগত মানের প্রশংসা করে সাংবাদিকদের বলেন, ‘বাংলাদেশের বাজারে বসুন্ধরা সিমেন্টের যথেষ্ট সুনাম রয়েছে উন্নত মানের জন্য। এটা বাংলাদেশের অনেক বড় সিমেন্ট কোম্পানি। ল্যাবরেটরি টেস্টেও বসুন্ধরা সিমেন্টের গুণগত মানের পরিচয় মিলেছে। এর কারখানাও উন্নত মানের। সবকিছু মিলিয়ে আমাদের মনে হয়েছে বসুন্ধরা সিমেন্ট অনেক জনপ্রিয় ও উচ্চ মানসম্পন্ন। তাই আমরা পায়রা সেতু নির্মাণে বসুন্ধরা সিমেন্টের ওপর আস্থা রেখেছি।’ বসুন্ধরা গ্রুপের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সিমেন্ট খাত) প্রকৌশলী এ কে এম মাহবুব-উজ্জামান বলেন, পটুয়াখালীর লেবুখালীতে নির্মেয় পায়রা সেতু এখন পর্যন্ত পদ্মা সেতু প্রকল্পের পর দ্বিতীয় বড় প্রকল্প। এই সেতুতে ৫০ হাজার টন সিমেন্ট লাগবে। এই পুরো সেতু নির্মাণেই ব্যবহার করা হবে বসুন্ধরা সিমেন্ট। তার মতে, এই সেতু হলে দক্ষিণাঞ্চলের কুয়াকাটার সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হবে। সেখানকার মানুষের জীবনযাত্রাও হবে উন্নত। এটি বর্তমান সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প। সেতুটি নির্মাণে সময় লাগবে তিন বছর। প্রকৌশলী মাহবুব-উজ্জামান বলেন, ‘বসুন্ধরা সিমেন্টের বিশেষ একটা মান আছে। বসুন্ধরা গ্রুপ বাংলাদেশে একমাত্র প্রতিষ্ঠান। আমরা সিমেন্টের ক্ষেত্রে বাংলাদেশে পরিবর্তন এনেছি। বিশ্বে ২৭ ধরনের সিমেন্ট থাকলেও বসুন্ধরা গ্রুপ বাংলাদেশে ডাইভারসিটি সিমেন্টের প্রবক্তা। বসুন্ধরা সিমেন্ট গুণগত মানে অবদান রাখছে। এই সিমেন্ট দিয়ে তৈরি সেতু অনেক দিন স্থায়ী হবে।’

up-arrow