Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:১৪
ছাত্রত্ব নেই, তবুও ‘প্রবল’ ছাত্রনেতা
মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ নজরুল হল ছাত্রলীগের আহ্বায়ক বশির উল্লাহ। তিনি হলে তার কক্ষে টর্চার সেল বানিয়েছেন। ছাত্রদের মারার জন্য  সেখানে জালি বেত রেখেছেন। জালি বেত ও বেঞ্চের ভাঙা পায়া দিয়ে তিনি ছাত্রদের পেটান। তার নির্যাতন থেকে সাংবাদিক, সাধারণ ছাত্র, ছাত্রদল এমনকি ছাত্রলীগ কর্মীও বাদ যায়নি। ছাত্রত্ব শেষ হলেও তিনি হল ছাড়েননি। সহপাঠীদের তিনি বলে বেড়ান—একটা খুন করে তিনি লাইম লাইটে আসতে চান। ছাত্রলীগ কর্মীদের মারধরের ঘটনায় ৯ অক্টোবর তার বিরুদ্ধে অধ্যক্ষের নিকট লিখিত অভিযোগ দিয়েছে ছাত্ররা।

ব্যবস্থাপনা বিভাগ অনার্স ৪র্থ বর্ষের ছাত্র মাহফুজুল ইসলাম জিকু ও অন্যান্য সূত্র থেকে জানা যায়, ৩ অক্টোবর বিকালে বশিরের ২৬০ নম্বর কক্ষে সাইফুল ইসলাম নামের এক ছাত্রকে তুচ্ছ ঘটনায় মারধর করতে নিয়ে যাওয়া হয়। জিকু ওই কক্ষে গিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়ার আবেদন করলে বশির, তার সহযোগী হল ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সাব্বির আহমেদ মজুমদার, সদস্য শহীদুল ইসলাম শাহীন, বেণী আমিন সুমন,  তৌহিদ, তানভীর, আনোয়ারসহ অন্যরা তাকে বেদম মারধর করে। কিছুদিন আগে ব্যবস্থাপনা বিভাগ ৩য় বর্ষের ছাত্র হিরণকে খাবার খাওয়া অবস্থা থেকে তুলে নিয়ে জালি বেত দিয়ে পেটানো হয়। তারপর তার থেকে ২১০০ টাকা হাতিয়ে নিয়ে নিজেরা ভাগ করে নেয়। ৭ জুন ব্যবস্থাপনা বিভাগের ছাত্র ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল ইসলাম জুয়েলকে বেঞ্চের পায়া দিয়ে পেটানো হয়। হলের সোহেল, আরিফ,  সৌরভ, জাহিদকে তুচ্ছ ঘটনায় মারধর করে বশির। হলে ৪ শতাধিক ছাত্র তার উৎপাতে অতিষ্ঠ। তার বিরুদ্ধে সিট বাণিজ্যের অভিযোগও রয়েছে। ছাত্রলীগের একাধিক নেতা জানান, এক বছর আগে বশির হল ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিল।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow