Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০৩:০৬
নাগরিকের তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে মামলা তদন্তে ভাটা
ডিএমপির সব থাকায় একই অবস্থা
আলী আজম

রাজধানীতে বাস করা নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহে ব্যস্ত পুলিশ সদস্যরা তাদের নিয়মিত মামলার তদন্ত করতে পারছেন না। এ কারণে থানায় মামলার তদন্তে ভাটা পড়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ৪৯টি থানাতেই এখন একই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, চলতি বছরের মধ্যেই প্রত্যেক নাগরিকের তথ্য সংগ্রহের কাজ শেষ করার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। যে কারণে পুলিশের অতিরিক্ত সদস্য এ কাজে যুক্ত করা হয়েছে। তারা তথ্য সংগ্রহের কাজ করতে গিয়ে মামলার তদন্ত এমনকি নিত্যদিনকার কাজও তারা করতে পারছেন না। প্রতিটি থানায় গড়ে অন্তত দুজন অফিসারসহ ছয়জন পুলিশ সদস্য এ কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। ডিএমপির কয়েকটি থানা ঘুরে এমন অভিন্ন চিত্র দেখা গেছে।

ডিএমপি সূত্র বলছে, চলতি বছরে ঢাকা মহানগরীতে ১২৪ জন হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। এর মধ্যে গত তিন মাসেই প্রাণ গেছে ৪৬ জনের। এসব ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হয়েছে। কিন্তু থানা পুলিশ অধিকাংশ ক্ষেত্রে ব্যর্থ হওয়ায় মামলাগুলোর তদন্তভার চলে যায় সিআইডি, ডিবি, সিটি ও পিবিআইতে।

জানা গেছে, বাড়ি, স্থাপনা ও প্রতিষ্ঠানের মালিক এবং ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহের জন্য ২৯ ফেব্রুয়ারি থেকে মাঠে নামে ঢাকা মহানগরের ৪৯টি থানার পুলিশ। গতকাল পর্যন্ত তথ্য ফরম বিতরণের মাধ্যমে এক কোটির বেশি নাগরিকের পরিচিতিমূলক তথ্যও সংগ্রহ করা হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow