Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০০
স্কুলছাত্র হত্যায় মৃত্যুদণ্ড
মাদক মামলায় যাবজ্জীবন
গাজীপুর প্রতিনিধি ও নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

গাজীপুর শহরের হাড়িনাল উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র মো. সেলিম হত্যা মামলায় এক ব্যক্তির ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে রায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. ফজলে এলাহী ভূঁইয়া গতকাল এ আদেশ দেন। এ সময় তিনি আদালতের কাঠগড়ায় ছিলেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম মো. নুরুল ইসলাম (৩২)। তিনি গাজীপুর সদর উপজেলার খুদে বরমী গ্রামের হামিদ আলীর ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০০৭ সালের ৯ জানুয়ারি গাজীপুর শহরের হাড়িনাল উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র মো. সেলিম ও তার বন্ধু মো. রাকিব হোসেনকে নিয়ে বরই খাওয়ার জন্য বাড়ির কাছে খুন্দিয়া গ্রামের হাসনারা বেগমের বাড়িতে যায়। এ সময় ওই বাড়ির কেয়ারটেকার নুরুল ইসলাম কাঠ কাটার একটি বাটাল নিয়ে তাদের ধাওয়া করেন। একপর্যায়ে সেলিমকে নুরুল ইসলাম ধরে ফেলেন এবং হাতে থাকা বাটালটি সেলিমের পেটে ঢুকিয়ে দেন। এতে তার নাড়িভুঁড়ি বের হয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় গাজীপুর সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা মো. হযরত আলী বাদী হয়ে নুরুল ইসলাম ও হাসনারা বেগমকে আসামি করে ওই দিনই জয়দেবপুর থানায় মামলা করেন। পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শামীম হোসেন তদন্ত শেষে নুরুল ইসলামকে অভিযুক্ত করে ওই বছরের ৯ মার্চ আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন। মামলায় ১১ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।

এদিকে রাজশাহীতে মাদক মামলায় এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত মিঠুন আলী (২২) পুঠিয়া উপজেলার আসির আলীর ছেলে।

 গতকাল দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক বেগম জাকিয়া পারভীন এই রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণাকালে আসামি আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ৪ নভেম্বর ৭০ গ্রাম হেরোইনসহ মিঠুন আলীকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় ওইদিনই তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে রাজশাহীর পুঠিয়া থানায় মামলা করে পুলিশ। পরে সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে গতকাল এ রায় ঘোষণা করে আদালত।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow