Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৩
পাটের ব্যাগ ব্যবহার নিয়ে ভিন্ন কৌশলে মিল মালিকরা
জানেন না অজুহাতে নির্দেশ উপেক্ষা
নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

পণ্যে পাটের ব্যাগ ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হলেও তা মানছেন না রংপুরের আটা ও ময়দা মিল মালিকরা। এখনো আটা, ময়দা ও ডাল সংরক্ষণে অবাধে প্লাস্টিকের ব্যাগ ব্যবহার করা হচ্ছে।

রংপুরের ১৮৫টি আটা ও ময়দা মিলে সরেজমিনে ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে। আটা ও ময়দা মিল মালিকরা বলছেন, ‘সরকারি নির্দেশনা সম্পর্কে তারা কিছুই জানেন না। তাই তারা প্লাস্টিকের ব্যাগ ব্যবহার করছেন। ’  রংপুর নগরীর তাজহাটের স্টার ফ্লাওয়ার মিলের মালিক শাহ আলম মোল্লা বলেন, ‘আটা ও ময়দা সংরক্ষণে পাটের ব্যাগ ব্যবহার বাধ্যতামূলক করার বিষয়টি জানা নেই। তবে সরকার নিয়ম করলে অবশ্যই তা মানতে হবে। ’ একই মন্তব্য করেন নগরীর সিটি ফ্লাওয়ার মিলের মালিক হাজী ময়েন উদ্দিন। আর নগরীর জেলা পরিষদ মিনি মার্কেটের পাইকারি ডাল ব্যবসায়ী এরশাদ আলী বলেন, রংপুরে ডাল মিল নেই। বাইরের জেলার মিল মালিকরা প্লাস্টিকের ব্যাগেই ডাল সংরক্ষণ করে রংপুরে বাজারজাত করছেন। জানতে চাইলে পাট অধিদফতর রংপুরের সহকারী পরিচালক সাইফুর রহমান বলেন, ১৭টি পণ্য সংরক্ষণ ও পরিবহনে পাটের ব্যাগ বাধ্যতামূলক করা হয়। আটা, ময়দা, ডাল, চিনি ও সার ছাড়া বেশির ভাগ পণ্যে পাটের ব্যাগ ব্যবহার করা হচ্ছে। যারা আইন মানছে না অভিযান চালিয়ে তাদের জরিমানা করা হচ্ছে। তবে সরকার গত মাসে আটা, ময়দা ও ডালসহ ১১টি পণ্যে পাটের ব্যাগ ব্যবহারের নির্দেশনা দেয়। নতুন পণ্যগুলোর নাম সবাইকে জানিয়ে সচেতন করতে প্রচার চালানো হচ্ছে। এসব পণ্যের মোড়ক হিসেবে পাটের ব্যাগের ব্যবহার নিশ্চিত করতে আইন অনুযায়ী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। পাট অধিদফতর রংপুরের সহকারী পরিদর্শকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, পাটের বহুমুখী ব্যবহার ও সম্প্রসারণ এবং পরিবেশ সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয় গত ২৪ জানুয়ারি আটা, ময়দা, আদা, রসুন, ডাল, আলু, মরিচ, হলুদ, ধনিয়া এবং তুষ-খুদ-কুঁড়া সংরক্ষণ ও পরিবহনে বাধ্যতামূলকভাবে পাটের ব্যাগ ব্যবহারের নির্দেশ দেয় পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়। এর আগে  ২০১৫ সালের ১৭ ডিসেম্বর মন্ত্রণালয় ধান, চাল, গম, ভুট্টা, সার ও চিনি সংরক্ষণ ও পরিবহনে বাধ্যতামূলকভাবে পাটের ব্যাগ ব্যবহারের নির্দেশ দেয়। সূত্র জানায়, একই উদ্দেশ্যে ২০১০ সালে পণ্যের মোড়কীকরণে পাটের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করে আইন করা হয়। ওই আইনে ২০ কেজির বেশি পণ্যের মোড়কীকরণে পাটের ব্যাগ ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়। কোনো প্রতিষ্ঠান এই আইন না মানলে সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ড বা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রয়েছে। দ্বিতীয়বার একই অপরাধ করলে শাস্তি সর্বোচ্চ দণ্ডের দ্বিগুণ হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow