Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০১:৩৩
ভাষাসৈনিকদের তালিকা চূড়ান্ত করার নির্দেশ
নিজস্ব প্রতিবেদক

ভাষাসৈনিকদের তালিকা আগামী ছয় মাসের মধ্যে চূড়ান্ত করার নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। এ ছাড়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশে একটি গ্রন্থাগারসহ ভাষা জাদুঘর নির্মাণ এবং জাদুঘরে সার্বক্ষণিক গাইড নিয়োজিত রাখা, ভাষা আন্দোলন সম্পর্কে প্রকৃত ইতিহাস সন্নিবেশিত করে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় ব্রুশিয়ার আকারে প্রস্তুত করার বিষয়ে পদক্ষেপ জানতে চাওয়া হয়েছে।

সংস্কৃতি সচিবকে এ নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। এ সংক্রান্ত আবেদনের শুনানি নিয়ে গতকাল বিচারপতি নাইমা হায়দার এবং বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাই কোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, শহীদ মিনারের পবিত্রতা রক্ষায় ও ভাষাসৈনিকদের তালিকা করতে ২০১০ সালের ২৫ আগস্ট ৮ দফা নির্দেশনা প্রদান করে হাই কোর্ট রায় দেয়। সেই রায়ের কিছু কিছু অংশ বাস্তবায়িত না হওয়ায় ২০১২ সালে বিবাদীদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হয়। ওই সময় সরকার পক্ষ থেকে ভাষাসৈনিকদের আংশিক তালিকা আদালতে পেশ করা হয়। কিন্তু আজ পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ তালিকা আদালতে পেশ করা হয়নি। এ বিষয়ে আদালতের নির্দেশনা বাস্তবায়ন আমরা হাই কোর্টে আবেদন করি।

এর আগে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পবিত্রতা ও মর্যাদা রক্ষা এবং শহীদ মিনারের পাশে জাদুঘর স্থাপনের নির্দেশনা চেয়ে ২০১০ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ হাই কোর্টে রিট করে।

রিটের পরিপ্রেক্ষিতে হাই কোর্ট রুল জারি করে। রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে আট দফা নির্দেশনা দেয় আদালত। নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে ভাষাসৈনিকদের প্রকৃত তালিকা তৈরি করে ২০১২ সালের ৩১ জানুয়ারির মধ্যে ওই তালিকা গেজেট আকারে প্রকাশ, আন্দোলনের স্মৃতিরক্ষার্থে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পবিত্রতা রক্ষা অন্যতম।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow