Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০১:৫৮
নির্মিত হচ্ছে নতুন নতুন ভবন
ফরহাদ উদ্দীন
নির্মিত হচ্ছে নতুন নতুন ভবন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) বিদ্যমান আবাসন সংকট কমাতে নির্মিত হবে দুটি বহুতল ভবন। এ ছাড়া একটি বর্ধিত ভবন তৈরি করা হবে।

এদিকে ইতিমধ্যে নির্মাণকাজ শেষ হওয়া রোকেয়া হলের ৭ই মার্চ ভবনটি উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে। এসব ভবন নির্মাণ হলে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে আবাসন সংকট অনেকটা কমে আসবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ডিসেম্বরে ঢাবির জন্য ৬০০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প একনেকে পাস হয়। এর মধ্যে ২৩০ কোটি টাকা ব্যয় হবে শিক্ষার্থীদের আবাসন সংকট নিরসনে বিভিন্ন হলের ভবন নির্মাণ এবং সম্প্রসারণের জন্য।

এসব উন্নয়ন প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে জগন্নাথ হলের অভ্যন্তরে ‘রবীন্দ্র ভবন’ নির্মাণ। একটি হাউস টিউটর ভবনসহ ১০ তলা বিশিষ্ট এই ভবন নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় ৯৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। ভবনটিতে এক হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থীর আবাসন ব্যবস্থা হবে। এ ছাড়া হলটির আটতলা বিশিষ্ট সন্তোষ চন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনটিকে ১০ তলা পর্যন্ত সম্প্রসারণ করা হবে। এতে ব্যয় হবে প্রায় ১১ কোটি দুই লাখ টাকা।

ফলে আরও দুই শতাধিক শিক্ষার্থী আবাসন সুবিধা পাবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের অভ্যন্তরেও একটি নতুন ভবন নির্মাণ করা হবে। ১১ তলা বিশিষ্ট এই ভবনটি (একটি হাউস টিউটর ভবনসহ) নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় ৮৬ কোটি টাকা। ভবনের নির্মাণ কাজ শেষ হলে আরও প্রায় এক হাজার শিক্ষার্থী আবাসন সুবিধা পাবেন।

এ ছাড়া ফজলুল হক মুসলিম হলেও একটি বর্ধিত ভবন নির্মিত হবে। পাঁচতলা বিশিষ্ট এই ভবনে শতাধিক শিক্ষার্থীর আবাসন ব্যবস্থা হবে।

এদিকে রোকেয়া হলের অভ্যন্তরে ১১ তলা বিশিষ্ট ৭ই মার্চ ভবনের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। আগামী মার্চ মাসে ভবনটির উদ্বোধন করা হতে পারে। নতুন এই ভবনটির উদ্বোধন হলে প্রায় এক হাজার ছাত্রী আবাসন সুবিধা পাবেন। এতে রোকেয়া হলের ছাত্রীদের আবাসন সংকটের নিরসন হবে।

ঢাবির পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের পরিচালক জীবন কুমার মিশ্র বলেন, ঢাবির উন্নয়নের জন্য সরকার বর্তমান সরকার যথেষ্ট সহায়তা করছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ২০০৯ সাল থেকে প্রায় এক হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে প্রায় ৪০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প ইতিমধ্যে বাস্তবায়ন হয়েছে। আর নতুন প্রকল্পগুলো টেন্ডারিং পর্যায়ে রয়েছে।

ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, নতুন প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন হলে আবাসন সংকট অনেকটা নিরসন হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow