Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৫৭
দাখিলের প্রশ্নফাঁস করে উত্তরপত্র তৈরির সময় ৬ শিক্ষক আটক
জড়িত বাকিদের ধরতে মাঠে পুলিশ
নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশালে দাখিল পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস করে কেন্দ্রসংলগ্ন একটি বাড়িতে বসে উত্তরপত্র তৈরির সময় কেন্দ্র সচিবসহ ৬ শিক্ষককে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

গতকাল পরীক্ষা শুরুর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় পৌর শহরের রূনসী এলাকার এম রহমান সড়কের মোস্তাফিজুর রহমানের বাড়ি থেকে তাদের আটক করা    হয়।

এ সময় উদ্ধার করা হয় চার সেট প্রশ্ন ও উত্তরপত্র। এ ঘটনায় আটক ৬ জন ও পলাতকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

বরিশাল জেলা পুলিশ সুপার এস এম আক্তারুজ্জামান জানান,  চলমান দাখিল পরীক্ষায় বাকেরগঞ্জের ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্রের সচিব পরীক্ষা শুরুর আগে সিলগালা প্যাকেট খুলে প্রশ্নপত্র বাইরে পাঠিয়ে দিতেন। এরপর কয়েকজন শিক্ষক উত্তরপত্র তৈরি করে কেন্দ্রে দায়িত্বরত শিক্ষকদের কাছে পাঠাতেন। পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে নির্দিষ্ট হারে চাঁদা নিয়ে দায়িত্বরত শিক্ষকরা ওই উত্তরপত্র সরবরাহ করতেন। আর পরীক্ষার্থীরা উত্তরপত্র দেখে লিখত।

গতকাল জেলা গোয়েন্দা পুলিশ জানতে পারে কেন্দ্রের পার্শ্ববর্তী মোস্তাফিজুর রহমানের বাড়িতে বসে শিক্ষকরা পদার্থবিজ্ঞান ও ইসলামের ইতিহাস বিষয়ের উত্তরপত্র তৈরি করছেন। তাত্ক্ষণিক অভিযান চালিয়ে কেন্দ্রের সচিব মাওলানা বশিরউদ্দিন, শিক্ষক মাওলানা নুরুজ্জামান, মাওলানা জসিমউদ্দিন, মাওলানা মেহেদী হাসান, মাওলানা আবু হানিফ ও মাওলানা আবদুস ছালামকে হাতেনাতে আটক করে গোয়েন্দারা। এ সময় তাদের কাছ থেকে পদার্থবিজ্ঞান এবং ইসলামের ইতিহাস বিষয়ের লিখিত ও নৈর্ব্যত্তিক চার প্রশ্ন এবং উত্তরপত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

উদ্ধারকৃত প্রশ্নপত্রের সঙ্গে গতকালের দাখিল পরীক্ষার পদার্থবিজ্ঞান ও ইসলামের ইতিহাস প্রশ্নপত্রের হুবহু মিল রয়েছে বলে জানিয়েছেন অভিযানে নেতৃত্বদানকারী জেলা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শাহাবউদ্দিন কবির।

তিনি বলেন, উত্তরপত্র পরীক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছানোর আগেই পুলিশের হাতে সংশ্লিষ্টরা আটক হন। পরে প্রশ্ন ও উত্তরপত্র জব্দ করে পুলিশ। অভিযানের সময় বাড়ির মালিক মোস্তাফিজুর রহমান পালিয়ে যান। এ ঘটনায় আরও অনেকে জড়িত। তাদের ধরতে পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow