Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ মার্চ, ২০১৭ ০২:৫৫
ইবির সেই পরীক্ষা বাতিল
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) এফ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় এক শিক্ষক ও দুই কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে এক শিক্ষার্থীর ছাত্রত্ব ও ভর্তি পরীক্ষা বাতিল করে।

পুনরায় এফ ইউনিটের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩৩তম সিন্ডিকেট সভায় এসব সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। জানা যায়, ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় এফ ইউনিটের প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে ওই ইউনিটের সমন্বয়ক ও গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নূরুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত এবং আগামী সাত দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া পরীক্ষা কমিটিতে থাকা অপর দুই সদস্য গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান ও পরিসংখ্যান বিভাগের সভাপতি মো. আলতাফ হোসেন রাসেলকে সতর্কবার্তা দিয়ে আগামী দুই বছর তাদের ভর্তি কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই কর্মচারী আলাউদ্দিন আলাল (লাইব্রেরি) ও সাইফুল ইসলামকে (অর্থ ও হিসাব শাখা) সাময়িক বরখাস্ত এবং কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়া প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গণিত বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী মনোজিৎকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার এবং তার অর্জিত সনদ বাতিল করা হয়েছে। একই সঙ্গে এফ ইউনিটে ভর্তি হওয়া ১০০ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল এবং পুনরায় পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিন্ডিকেট।

এ ছাড়া প্রশ্ন ফাঁসে জড়িত থাকার অভিযোগে মিজানুর রহমান লাল্টু নামের এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৭ নভেম্বর এফ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শেষে বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ ওঠে।

তবে প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গণিত বিভাগের সভাপিত নূরুল ইসলাম।

up-arrow