Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৩২
বৃষ্টি হলেই হাঁটুপানি, দুর্ভোগ
রাজশাহী বাস টার্মিনাল
নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী
বৃষ্টি হলেই হাঁটুপানি, দুর্ভোগ

সামান্য বৃষ্টিতে প্রবেশপথে পানি। আরেকটু বর্ষণে হয় এক হাঁটু। এই অবস্থা রাজশাহী বাস টার্মিনালের। নগরীর নওদাপাড়ায় নির্মিত ৭ কোটি টাকার এই টার্মিনালটির এমন অবস্থার কারণে অধিকাংশ বাস থাকে রাস্তায় দাঁড়িয়ে। অনেক চালক টার্মিনালমুখো হন না বৃষ্টি হলে। নগরীর যানজট নিরসনে ২০১১ সালে নওদাপাড়ায় নির্মাণ করা হয় বাস টার্মিনালটি। ৭ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই টার্মিনাল থেকে যাত্রী নিয়ে বাস ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও তা ব্যবহৃত হচ্ছে শুধুমাত্র বাস রাখার গ্যারেজ হিসেবে। কারণ টার্মিনালের দূরবস্থার কারণে যাত্রীরা যান না সেখানে। গতকাল নগরীর নওদাপাড়া বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, প্রবেশপথে বৃষ্টির পানি জমা হয়ে আছে। ভিতরে বাসে ভর্তি। এর মধ্যে নতুন করে কিছু বাস প্রবেশ করছে, আবার কিছু বাইরে বের হচ্ছে। তবে কোনো বাসেই যাত্রী নেই। বাস টার্মিনাল থেকে ছেড়ে যাওয়া বেশ কয়েকটি বাসের চালকদের সঙ্গে কথা হলে তারা জানান, এই টার্মিনালটি তারা ব্যবহার করেন গ্যারেজ হিসেবে। সময় হলে টার্মিনাল ছেড়ে মূল শহরের চিহ্নিত পয়েন্টগুলোতে গিয়ে যাত্রী নিয়ে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। এই বাস টার্মিনাল হওয়ার পরেও এখানে কেন যাত্রী তোলা হয় না এমন প্রশ্নে তারা বলেন, যাত্রীরা এখানে আসতে চায় না। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির সহ-সভাপতি মুনজুর রহমান পিটার বলেন, ‘রাজশাহী থেকে পুঠিয়া যেতে বাস ভাড়া ২০ টাকা। আর রাজশাহী শহর থেকে নওদাপাড়া বাস টার্মিনালে যেতেই ভাড়া লাগবে ২০ টাকা। আবার অটোরিকশা, সিএনজি ও ইমা রাজশাহীর কোর্ট থেকে সরাসরি পুঠিয়া, গোদাগাড়ী, নওগাঁ চলে যাচ্ছে। সাধারণ যাত্রী কেন পকেটের টাকা খরচ করে ওই টার্মিনালে যাবে।’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow