Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:০৫
টেকসই উন্নয়নে তিন চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশের সামনে
সিপিডির বার্ষিক লেকচারে বক্তারা
নিজস্ব প্রতিবেদক

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে বাংলাদেশের সামনে তিনটি চ্যালেঞ্জ রয়েছে। যা এসডিজির টার্গেটগুলোর মধ্যে সঠিকভাবে প্রতিফলিত হয়নি। এগুলো হলো— পুষ্টিহীনতা ও স্থূলতা, জলবায়ুর পরিবর্তন এবং আয় বৈষম্য। এগুলোর প্রশমন না করতে পারলে টেকসই উন্নয়ন সম্ভব নয়। গতকাল রাজধানীর গুলশানে একটি হোটেলে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) বার্ষিক লেকচারে বক্তারা এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে জাতিসংঘের সাবেক সহকারী মহাসচিব অধ্যাপক জোমো কেওমি সুনদারাম, সিপিডির চেয়ারম্যান অধ্যাপক রেহমান সোবহান, বিশেষ ফেলো ড. মুস্তাফিজুর রহমান, নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অধ্যাপক জোমো বলেন, এসডিজিতে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ পুষ্টিহীনতা। এমডিজি কিংবা এসডিজিতে দারিদ্র্য হ্রাসের কথা বলা হলেও পুষ্টিহীনতা কিন্তু রয়েই যাচ্ছে। তিনভাবে পুষ্টিহীনতার প্রকাশ আমরা দেখতে পাচ্ছি। খাবারের অভাব, গুণগত খাবারের অভাব এবং অসচেতন খাদ্যাভ্যাসের কারণে স্থূলতা। খাবারের অভাব অনেকটা কমে এসেছে। তবে গুণগত খাবারের অভাবে ওজনহীনতা রয়েই যাচ্ছে। আবার অসচেতন খাদ্যাভ্যাসের কারণে স্থূলতা বাড়ছে ব্যাপক আকারে। এর ফলে ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, স্ট্রোকসহ বিভিন্ন রোগ ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি করছে। জোমো সুনদারাম বলেন, বিশ্বে ৮০০ মিলিয়ন মানুষ খাবারের অভাবে থাকলেও দুই বিলিয়নের বেশি মানুষ অতিরিক্ত ওজনজনিত সমস্যায় ভুগছে। বাংলাদেশে দারিদ্র্য হ্রাস হলেও পুষ্টিহীনতা কমেনি সেই হারে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow