Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:৪৬
সুনামগঞ্জ সদরে ইমনের প্রার্থিতা ঘোষণা, সঙ্গে নেই দলের নেতারা
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল করতে বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র ও দেশবিরোধী চক্রান্তের বিরুদ্ধে নাশকতাবিরোধী গণমিছিল ও সমাবেশ করেছে জেলা আওয়ামী লীগের একাংশ। রবিবার দুপুরে শহরের উকিলপাড়া থেকে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল কবির ইমনের নেতৃত্বে এ মিছিলটি বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে। তবে জেলা আওয়ামী লীগের ব্যানারে মিছিলটি করা হলেও এতে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মতিউর রহমান, সিনিয়র সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুট এবং পৌর মেয়র নাদের বখতসহ মূল দল ও অঙ্গ সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ কোনো নেতাকে অংশ নিতে দেখা যায়নি। মিছিল শেষে বালুর মাঠে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টিকে অতীতের নির্বাচনগুলোতে ছেড়ে দেওয়া সুনামগঞ্জ সদর আসনে নিজেকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেন এনামুল কবীর ইমন। ওই সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আফতাব উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নান্টু রায়, হায়দার চৌধুরী লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুর রহমান প্রমুখ। এ সময় তারা বলেন, বিএনপি দেশের চলমান উন্নয়ন দেখে দিশাহারা। তাই আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচন বানচাল করতে আবারও দেশি-বিদেশি নানামুখী ষড়যন্ত্র করছে। ২০১৪ সালের নির্বাচন প্রতিহত করতে জ্বালাও-পোড়াওয়ের রাজনীতি করে দেশের গণতন্ত্রকামী মানুষকে থামাতে ব্যর্থ হলেও তাদের ষড়যন্ত্র থেমে নেই। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশদ্রোহী বিএনপি-জামায়াতের সব ষড়যন্ত্র জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শক্ত হাতে প্রতিহত করা হবে। গণমিছিল নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, নামে নাশকতাবিরোধী গণমিছিল হলেও সদর আসনে নিজের শক্তিমত্তা জানান দিতে সারা জেলা থেকে সহস্রাধিক মানুষ জড়ো করে শহরে শোডাউন করেছেন ইমন। এতে সদর আসনের দুই উপজেলার মানুষ বা নেতা-কর্মীর উপস্থিতির সংখ্যা ছিল হাতেগোনা। সিনিয়র নেতারা সম্পৃক্ত না থাকায় ঢাকঢোল পেটানো এই মিছিলে লোকসমাগম একদম কম হয়েছে বলে মনে করছেন তারা। জানা যায়, এর আগে জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পাঁচ কিলোমিটার দীর্ঘ র‌্যালির মাধ্যমে ব্যাপক শোডাউন করে সদর আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ সবাইকে চমকে দেন। তার মিছিলে সদর আসনের হাজার হাজার জনতার ঢল নেমেছিল। একইভাবে আরও একটি শোডাউন করেছিলেন সুনামগঞ্জ পৌরসভার অকাল প্রয়াত জনপ্রিয় মেয়র আয়ুব বখত জগলুল। আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য পদে থাকা প্রয়াত জগলুল এ আসনে দলীয় টিকিট নিয়ে নির্বাচন করতে চেয়েছিলেন। এদিকে নবম সংসদে উপনির্বাচনে বিজয়ী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান এবারও এ আসন থেকে নির্বাচন করতে লবিং করে যাচ্ছেন। এ ছাড়া কিছু দিন আগে প্রার্থী হবেন বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নূরুল হুদা মুকুট।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow