Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:২৩
প্রতিটি দলেরই নির্বাচনে অংশ নেওয়া উচিত
—রাষ্ট্রপতি
কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দলেরই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা উচিত এবং তারা নির্বাচনে আসবে সেটা আমি কামনা করি। গতকাল বিকালে কিশোরগঞ্জের ইটনায় তাকে দেওয়া গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, প্রতিটি দলকেই এমন মানুষকে মনোনয়ন দেওয়া উচিত যারা সৎ, আদর্শবান এবং যাদেরকে ভোট দিলে জনগণের কল্যাণ হবে ও দেশ এগিয়ে যাবে। জনগণের উদ্দেশে তিনি বলেন, অতীতে কোন দল উন্নয়ন করেছে সেটা আপনারা ভালো করেই জানেন। যারা উন্নয়ন করেছে তাদেরকেই ভোট দেবেন। রাষ্ট্রপতি হাওরের উন্নয়ন বিষয়ে বলেন, হাওরের মানুষ একসময় রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে পারবে, তা ভাবতেও পারেনি। আমি হাওরবাসীর সে স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দিয়েছি। এখন স্বপ্ন দেখি হাওরে একদিন ফ্লাইওভার হবে। এক ইউনিয়ন থেকে আরেক ইউনিয়নে ফ্লাইওভার দিয়ে যাতায়াত করবে মানুষ। রাষ্ট্রপতি অতীত স্মৃতি রোমন্থন করে বলেন, হাওরে আমি জীবন যৌবন কাটিয়েছি। হাওরবাসী বারবার আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে। সে কারণেই আজ আমি রাষ্ট্রপতি হতে পেরেছি। তাই বারবার ছুটে আসি এখানে। আমার সাড়া জীবনের স্বপ্ন ছিল হাওর এলাকাকে কীভাবে সারা বিশ্বে পরিচিত করানো যায়। আমার সে স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। আমি হাওরকে শুধু দেশেই পরিচিত করিনি, পৃথিবীর অনেক দেশ এখন হাওর এলাকাকে চিনে।

হাওরের মানুষ যেমন আমাকে ভালোবাসে, আমিও হাওরের মানুষকে মন-প্রাণ দিয়ে ভালোবাসি। তিনি বলেন, হাওরে কিছু এলাকা আছে, যেখান থেকে ধান কেটে ঘরে তোলা কৃষকের জন্য কষ্টের। সেসব এলাকায় রাস্তা করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। তবে এসব রাস্তায় ট্রাক্টর চলাচল বন্ধ করতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এসব রাস্তার রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব আপনাদের নিতে হবে। কৃষিতে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য কৃষকদের প্রতি তিনি আহ্বান জানিয়ে বলেন, একসময় ফরিদপুর, পাবনা, কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মানুষ ধান কাটার জন্য আসত। এখন দেশ উন্নত হওয়ায় তারা আসে না। এ অবস্থায় ধান কাটার জন্য উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হবে। কৃষি প্রধান এলাকা ইটনায় ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সেটা অনুমোদন হয়ে গেছে।

দ্বিতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ায় তাকে এ গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়। এর আগে রাষ্ট্রপতি ইটনার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের ফলক উন্মোচন করেন। ইটনা রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সরকারি কলেজ মাঠে মুক্তিযোদ্ধা মো. ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন আফজাল হোসেন এমপি, রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এমপি, দিলারা বেগম আসমা এমপি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান শাহজাহান, ইটনা উপজেলা চেয়ারম্যান চৌধুরী কামরুল হাসান, প্রভাষক জসীম উদ্দীন প্রমুখ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow