Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৮:৫৪ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
১১তম 'ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইয়ার্ন এন্ড ফেব্রিক শো-উইন্টার এডিশন' শুরু বুধবার
প্রেস বিজ্ঞপ্তি
১১তম 'ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইয়ার্ন এন্ড ফেব্রিক শো-উইন্টার এডিশন' শুরু বুধবার

ঢাকায় আন্তর্জাতিক আয়োজক সংস্থা সেমস্ গ্লোবাল ইউএসএ ও সিসিপিআইটি টেক্স চায়না যৌথভাবে আয়োজন করছে “১১তম ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইয়ার্ন এন্ড ফেব্রিক শো ২০১৭- উইন্টার এডিশন” এবং “ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ডেনিম শো ২০১৭- উইন্টার এডিশন”। আগামী ১৫-১৮ ফেব্রুয়ারি ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় চার দিনব্যাপী এই আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।


 
উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন, চায়না, সিঙ্গাপুর, মালয়শিয়া, শ্রীলংকা, ভারত ও বাংলাদেশের প্রায় ১৮০টি প্রতিষ্ঠান এই বৃহত্তম আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করছে। থাকছে সকল প্রকার সুতা, ডেনিম, নিটেড ফেব্রিক্স, ফ্লিস্, ইয়ার্ন এন্ড ফাইবার, আর্টিফিসিয়াল লেদার, অ্যামব্রয়ডারি, বাটন, জিপার, লিনেন ব্লেন্ড’সহ এ্যাপারেল পণ্যের বিশাল সমাহার। প্রদর্শনীটি গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রির ভোক্তা, উদ্যোক্তা, আমদানিকারক ও সরবরাহকারী সকলের জন্য ওয়ান স্টপ প্লাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে।
 
উল্লেখ্য, সেমস্ গ্লোবাল ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিগত ২৪ বছরেরও বেশি সময় ধরে দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বহুজাতিক প্রদর্শনীর আয়োজক প্রতিষ্ঠান হিসেবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। বর্তমানে সংস্থাটি বিশ্বের ৮টি দেশে সেমস্ ইউএসএ, সেমস্ চায়না, সেমস্ ইন্ডিয়া, সেমস্ বাংলাদেশ, সেমস্ শ্রীলংকা, সেমস্ গ্লোবাল এশিয়া প্যাসিফিক সিঙ্গাপুর, সেমস্ ইন্দোনেশিয়া এবং সেমস্ ব্রাজিল নামে নিজস্ব অফিস পরিচালনা করছে। পাশাপাশি আরো ১০টি দেশে এ্যাসোসিয়েট শাখার মাধ্যমে বছরে ৪০টিরও বেশি আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী আয়োজন করছে।

সিসিপিআইটি টেক্স ১৯৮৮ সালে চায়না ন্যাশনাল টেক্সটাইল এন্ড অ্যাপারেল কাউন্সিল এর নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত হয়। সেমস্ গ্লোবাল ইউএসএ-এর সাথে সিসিপিআইটি টেক্স চায়না প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে এক্সিবিশন আয়োজন করছে।
 
প্রদর্শনীগুলো প্রতিদিন সকাল ১০.৩০ থেকে সন্ধ্যা ৭.৩০ পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। প্রদর্শনী পরিদর্শনের জন্য www.e-registrations.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রি-রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।

 

বিডি-প্রতিদিন/পাভেল/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

up-arrow