Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:৪৯ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
ঢাকা আইটি-আইটিইএস চাকরি মেলায় ৩৭৭ জন নির্বাচিত
প্রেস বিজ্ঞপ্তি

ঢাকা আইটি-আইটিইএস চাকরি মেলায় ৩৭৭ জন নির্বাচিত

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে তরুণ-তরুণীদের চাকুরি এবং প্লেসমেন্ট পোর্টাল www.bdskills.com-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের মাধ্যমে শেষ হলো দিনব্যাপী 'ঢাকা আইটি-আইটিএস চাকরি মেলা -২০১৭'।  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্সটিটিউট অব বিজনেস এ্যাডমিনিস্ট্রেশন (আইবিএ)- মিলনায়তনে আয়োজিত এ চাকুরি মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্লেসমেন্ট পোর্টাল উদ্বোধন এবং বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার তুলে দেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।

 

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল-এর আওতায় লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভার্ন্যান্স প্রজেক্ট (এলআইসিটি)- আইবিএ, bikroy.com এবং আর্নস্ট অ্যান্ড ইয়াং যৌথভাবে এ চাকুরি মেলার আয়োজন করে।  

মেলায় বাংলাদেশের প্রথম সারির ৫০টিরও বেশি আইটি কোম্পানির প্রতিনিধিগণ উপস্থিত থেকে চাকুরিপ্রার্থী আগ্রহী তরুণ-তরুণীদের সাক্ষাৎকার নেন এবং  প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত করেন। চাকুরি মেলায় যোগ দেয়ার জন্য গত ১০ দিনে সারাদেশ থেকে  ১০ হাজারের বেশি স্নাতক অনলাইনে নিবন্ধন করেন।
 
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের লক্ষ্য ২০২১ সালের মধ্যে আইটি-আইটিইএস খাতে রপ্তানি আয় পাঁচ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করা এবং ২০ লক্ষ আইটি পেশাজীবী গড়ে তোলা। সে ধারাবাহিকতায় আমরা এ মেলার আয়োজন করেছি। আশা করছি, এ ধরনের আয়োজন আমরা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নিয়ে যাবো।

তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার লক্ষ্যে এলআইসিটি প্রকল্প দেশব্যাপী গুণগত প্রশিক্ষণ প্রদান করছে। ইতোমধ্যে এ সংখ্যা ছয় হাজার ছাড়িয়েছে। এসব প্রশিক্ষিত তরুণ-তরুণীরা অনেক সময় তাদের যোগ্যতা ও দক্ষতা অনুযায়ী কাজ পায় না। অন্যদিকে নিয়োগদাতা আইটি প্রতিষ্ঠানগুলো সহজে ও কম সময়ে সঠিক কর্মী নির্বাচন করার ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জে পড়ে। এ সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যই এলআইসিটি bdskills.com-নামের এ প্লাটফর্মটি তৈরি করেছে।  

জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেন, একই সঙ্গে এটি চাকুরিপ্রার্থী এবং চাকুরিদাতাদের সমানভাবে কার্যকর হবে। সঠিক কর্মী নির্বাচন যেমন সহজ হবে তেমনি সময়ও বাঁচবে।

এলআইসিটি প্রকল্পের কম্পোনেন্ট টিম লিডার সামি আহমেদ bdskills.com-এর বিস্তারিত তুলে ধরেন। চাকুরি মেলায় কোড ফেস্ট এবং বক্তৃতা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। দুটি প্রতিযোগিতায় তিন জন করে মোট ছয়জনকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।  

সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্বিবদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান এবং সভাপতিত্ব করেন আইবিএ-এর ভারপ্রাপ্ত পরিচালক অধ্যাপক ফরহাত আনোয়ার। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন এলআইসিটি প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. রেজাউল করিম এনডিসি এবং আইবিএ-এর সহকারি অধ্যাপক মো. রেজাউল কবির।  

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এবং প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন যথাক্রমে বেসিস প্রেসিডেন্ট মোস্তফা জব্বার, ডাটা সফটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহবুব জামান, আমরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ ফরহাদ আহমেদ, মাইক্রোসফট বাংলাদেশ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবির, বিক্রয় ডটকমের মার্কেটিং ডিরেক্টর মিশা আলী এবং আর্নস্ট অ্যান্ড ইয়াং এর পরিচালক কমলেশ ভায়াস। এছাড়া অনুষ্ঠানে সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তা, তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবসায়ী, গণমাধ্যমকর্মী এবং অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

১১ হাজার অনলাইন নিবন্ধনের মধ্য দিয়ে আয়োজনটি সফলভাবে সম্পন্ন হয়। প্রায় ২৫ হাজার দর্শনার্থী মেলায় অংশ নেন। এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে ১০ হাজার সিভি সংগ্রহ করা হয়েছে যা চাকরির অফারের ক্ষেত্রে একটি নতুন মাইলফলক।

প্রাথমিকভাবে ৩৭৭ জন যোগ্য প্রার্থীকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য মেলা থেকেই বাছাই করা হয়েছে। বিপুল সংখ্যক চাকরির অফার পেয়ে আয়োজক এবং দর্শনার্থীরা প্রচুর উচ্ছ্বসিত।


বিডি প্রতিদিন/১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/ফারজানা

আপনার মন্তব্য

up-arrow