Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ৪ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৪ জুন, ২০১৬ ০০:১০
ঘুষের আখড়া ঝিনাইদহের নির্বাচন অফিস
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহ জেলা ও সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসে ঘুষবাণিজ্য ‘ওপেন সিক্রেট’। অভিযোগ দিলে কর্মকর্তারা উল্টো অভিযোগকারীকে হুমকি-ধামকি দেন। ভুক্তভোগীরা বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সূত্র জানায়, ভোটার তালিকায় নাম উঠানো, সংশোধন ও স্থান পরিবর্তনসহ নানা কাজে কৌশলে টাকা হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে। এসব কাজ অফিসে না করে শহরের তালতলায় একটি কম্পিউটারের দোকানে পাঠানো হয়। সেখানে ১০০ টাকা দিয়ে ভোটাররা কাজ করিয়ে আনছেন। কলেজপড়ুয়া নাজমুল হাসান অভিযোগ করেন— জীবনে প্রথম ভোটার হতে গিয়ে এমন হয়রানি হতে হবে জানা ছিল না। টাকার বিনিময়ে ভোটার হতে হয়েছে। শুধু নাজমুল নয়, অনেকের অভিযোগ টাকা ছাড়া এখানে কাজ হয় না। কয়েকজন কলেজ শিক্ষক জানান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোখলেচুর রহমান যোগসাজশ করে অফিস সহকারীদের দিয়ে নির্বাচনী দায়িত্ব বাবদ ঘুষ নিচ্ছেন। টাকার বিনিময়ে পছন্দের ব্যক্তিকে একাধিক নির্বাচনী দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। জেলা নির্বাচন অফিসার জাহাঙ্গীর হোসেন ও সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোখলেছুর রহমান এসব অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, টাকা নিলে অফিস সহকারী ও পিয়ন নিতে পারে। এখানে কোনো অনিয়ম ও দুর্নীতি হচ্ছে না। বিধি অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।




up-arrow