Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১১ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ জুন, ২০১৬ ০১:৫৬
হাসপাতালে স্ত্রীর লাশ রেখে পালানোর সময় স্বামী আটক
গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরে স্ত্রীর লাশ হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যাওয়ার পর জনতা স্বামীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। আটক শরিফুল ইসলাম (২৫) ওই এলাকার আবুল কাসেমের ছেলে।

শুক্রবার বিকালে এ ঘটনা ঘটেছে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের রাহাপাড়া এলাকায়। নিহত মুক্তা আক্তার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের হায়দারাবাদের লক্ষণদিয়া এলাকার জামাল মিয়ার মেয়ে। বাবার দাবি দুই লাখ টাকা যৌতুক না পেয়ে স্বামী শরিফুল ইসলাম তার মেয়েকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। একই কথা জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৪০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আজিজুর রহমান শিরিষ। তবে শরিফুল পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, পারিবারিক কলহের জেরে তার স্ত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঘরে ঝুলে ছিল। সে তাড়াতাড়ি হাসপাতালে নিয়ে যায়। ভয়ে সে পালিয়ে যায়। জয়দেবপুর থানার এসআই পরিমল বিশ্বাস জানান, শুক্রবার বিকাল ৩টার দিকে শরিফুল স্ত্রী মুক্তা আক্তারকে (১৯) সজ্ঞাহীন অবস্থায় গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেলের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মুক্তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি জানান, নিহতের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে গলায় কালচে দাগ রয়েছে। ময়না তদন্তের পর জানা যাবে এটা হত্যা, না আত্মহত্যা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow