Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ২২ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২২ জুন, ২০১৬ ০১:৪৯
টাঙ্গাইলে আহত যুবকের মৃত্যু তিন জেলায় জখম ৩০
ইউপি নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা
প্রতিদিন ডেস্ক

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে শেষ দফা ইউপি নির্বাচনের দিন ব্যালটপেপার ছিনতাইয়ের সময় পুলিশের গুলিতে আহত যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া গতকাল ঠাকুরগাঁও, নোয়াখালী ও পিরোজপুরে নির্বাচন-পরবর্তী হামলা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন ৩০ জন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

টাঙ্গাইল : কালিহাতীতে ষষ্ঠ (শেষ দফা) ইউপি নির্বাচনের দিন ব্যালটপেপার ছিনতাইয়ের সময় পুলিশের গুলিতে আহত যুবক আলমগীর হোসেনের (৩২) মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে মারা যান তিনি। আলমগীর উপজেলার পোষনা উত্তর পাড়া গ্রামের সুরুজ্জামান মিয়ার ছেলে। কালিহাতী থানার এসআই ওয়াদুদ জানান, ৪ জুন পোষনা ইউপি নির্বাচনে ভোটগ্রহণের সময় সদস্যপ্রার্থী আমীর আলীর সমর্থক আলমগীরসহ ১০/১২ জন জোর করে কেন্দ্রে ঢুকে ব্যালটপেপার ছিনিয়ে নেওয়ার সময় পুলিশ গুলি চালায়। এ সময় আলমগীর গুলিবিদ্ধ হন। ঠাকুরগাঁও : সদর উপজেলা বেগুনবাড়ি ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিজয়ী ও বিজিত প্রার্থীর সমর্থদের সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় দোকানপাট ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ করা হয়। আহত হন উভয় পক্ষের ১১ জন। ইউনিয়নের দানারহাট বাজারে সোমবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। এর পর থেকে এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। আহতদর মধ্যে চারজনকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসক দুজনকে রংপুর মেডিকেলে স্থানান্তর করেন। সদর থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, সোমবারের ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পিরোজপুর : সদর উপজেলার কদমতলা ইউনিয়নে ইউপি নিয়ে বিরোধের জেরে সাতজনকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ইউনিয়নের নিকারীহাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের প্রথমে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে পরে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় খুলনা পাঠানো হয়। নৌকার বিজয়ী প্রার্থীর কর্মী সমর্থকের ওপর দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর লোকজন এ হামলা চালায় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নোয়াখালী : সেনবাগ উপজেলার ছাতারপাইয়া ইউনিয়নে নির্বাচনী সহিংসতার জেরে গতরাতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ১২ জন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাকা গুলি ছোঁড়ে। রাত ১১টায় এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছিল।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow