Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : বুধবার, ২৯ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৫
পুলিশের গ্রেফতারবাণিজ্য জনমনে আতঙ্ক
ইফতারির টাকায় ছেলেকে মুক্ত করেছেন মা
শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বিশেষ অভিযানে পুলিশের বিরুদ্ধে গ্রেফতারবাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগীরা জানান, কোনো অভিযোগ না থাকলেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে টাকা আদায় করে ছেড়ে দিচ্ছে। আর এতে নিরীহ মানুষের মধ্যে বিরাজ করছে গ্রেফতার আতঙ্ক।   জানা যায়, গত ১৮ জুন ভনবীর ইউনিয়নের পশ্চিম লইয়ারকুল গ্রামের দুধু মিয়াকে ধরে এনে ১৫ হাজার, ১৫ জুন কালাপুর ইউনিয়নের লামুয়া গ্রামের জাকির মিয়াকে ধরে ১০ হাজার, ১২ জুন রাতে হবিগঞ্জ সড়কের রিকশা মেকানিক নূরুল ইসলামকে ধরে ১২ হাজার ও নতুন বাজারে দোকান কর্মচারী মিঠুকে ধরে এনে দুই হাজার টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয় পুলিশ। জাকিরের মা মুলুকজান বলেন, ‘আমার নিরপরাধ ছেলেকে পুলিশ রাতে ধরে নেয়। পর দিন ১০ হাজার টাকা দিয়ে ছেলেকে ছাড়িয়ে আনি। ওই টাকা সমিতি থেকে তুলে এনেছিলাম রোজা মাসে মেয়ের বাড়ি ইফতার পাঠানোর জন্য। পুলিশকে টাকা দেওয়ায় ইফতার পাঠাতে পারলাম না। ’ রিকশা মেকানিক নূরুল ইসলাম বলেন, ‘আমি রিকশা মেরামত করে প্রতিদিন ৭০-৮০ টাকা রুজি করি। ঋণ করে পুলিশকে ১২ হাজার টাকা দিয়ে ছুটে (ছাড়া) এসেছি। ’ শ্রীমঙ্গল থানার ওসি মাহবুবুর রহমান বলেন, থানার গ্রেফতারবাণিজ্যের বিষয় আমার জানা নেই। কেউ এ রকম করলে থানার অভিভাবক হিসাবে আমাকে জানাতে পারতো। আমি যাচাই করার চেষ্টা করবো।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow