Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ জুলাই, ২০১৬ ০০:১১
ম্যাজিস্ট্রেট দেখে পালালেন ইউপি চেয়ারম্যান-সদস্য
ভিজিএফের চাল আত্মসাৎ
বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের রামপালে ঈদ উপলক্ষে দুস্থদের বরাদ্দকৃত ভিজিএফেএর চাল আত্মসাতের অপরাধে বাইনতলা ইউপি সচিবসহ দুজনকে আটক করেছেন জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মাদ আলী সিদ্দিকী। এই অভিযান চলাকালে দৌড়ে পালিয়ে যান ইউপি চেয়ারম্যান ফকির আব্দুল্লাহ এবং সদস্যরা। তবে শেষ রক্ষা হয়নি তাদের। আটক ইউপি সচিব মোয়াজ্জেম হোসেন, গ্রাম পুলিশ খান মোয়াজ্জেম ছাড়াও পালিয়ে যাওয়া চেয়ারম্যান ও সদস্যদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। রামপাল উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বুধবার রাতে থানায় মামলাটি করেন। মামলাটি দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সিডিউলভুক্ত হওয়ায় পুলিশ তদন্তের জন্য উপপরিচালক-সমন্বিত কার্যালয় খুলনা বরাবর চিঠি পাঠিয়েছে। আটক ইউপি সচিব ও গ্রাম পুলিশকে গতকাল পাঠানো হয়েছে বাগেরহাট কারাগারে। রামপাল উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ জানায়, বাইনতলা ইউনিয়নের তালিকাভুক্ত এক হাজার ৯২ অসহায় ও দরিদ্র মানুষের মধ্যে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ২০ কেজি করে ভিজিএফের চাল বুধবার সকালে ইউপি ভবনে বিতরণ শুরু হয়। শুরু থেকেই ২০ কেজির পরিবর্তে চাল দেওয়া হয় ১৪/১৫ কেজি করে। এ খবর দ্রুত পৌঁছে যায় জেলা প্রশাসকের কাছে। জেলা প্রশাসক জাহাংগীর আলমের নির্দেশে বাগেরহাটের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মাদ আলী সিদ্দিকী অভিযান চালান। নড়াইলে পাচারের সময় চাল জব্দ : নড়াইল প্রতিনিধি জানান, লোহাগড়ার কোটাকোল ইউনিয়নে দুস্থদের মধ্যে বিতরণের জন্য বরাদ্দের ১৬ টন চাল পাচারের সময় গতকাল জনতার প্রতিরোধের মুখে পাচারকারী পালিয়ে যায়। পরে লোহাগড়ার ইউএনও চালগুলো জব্দ করেন। ঈদ উপলক্ষে দুস্থদের মধ্যে বিতরণের জন্য কোটাকোল ইউপির বিদায়ী চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর খানকে এই চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। জাহাঙ্গীর নড়াইল কৃষকলীগের সম্পাদক। সদ্য অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে তিনি পরাজিত হন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow