Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:১৯
আবারও সক্রিয় চোরাকারবারিরা
সীমান্তপথে আসছে অস্ত্র-গোলাবারুদ
দিনাজপুর প্রতিনিধি

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর আবারও সক্রিয় হয়ে উঠেছে হিলিসহ এর আশপাশের সীমান্তে অস্ত্র চোরাকারবারিরা। ভারত থেকে চোরাইপথে আবারও আসতে শুরু করেছে অস্ত্র, গোলাবারুদ ও বোমা তৈরির জোগান। এসব অস্ত্র মজুদ করা হচ্ছে সীমান্তবর্তী আবাসিক হোটেলগুলোতে। শুক্রবার এমনই একটি চালান উদ্ধার করে বিজিবি। বিজিবি জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জয়পুরহাট ৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের মেজর আশরাফ আলীর নেতৃত্বে বিজিবির একটি দল রাত সাড়ে ৮টায় হিলি সীমান্তবর্তী সিপি রোডের হিলি আবাসিক হোটেলে অভিযান চালায়। এ সময় হোটেলের ৯ নং রুমের বিছানার তোশকের নিচে থেকে জাপানে তৈরি একটি নাইন এমএম পিস্তল, দুটি ম্যাগাজিন, ৫ রাউন্ড গুলি, এক কেজি গান পাউডার, চারটি চাইনিজ কুড়াল, দুটি বড় চাকু, বোমা বানানোর সরঞ্জামসহ ৫০০ রুপির ৫০ হাজার ভারতীয় রুপির বান্ডিল এবং সেই সঙ্গে একটি বাংলাদেশি মানচিত্র উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়াও ওই ঘরের বাথরুম থেকে ৮টি ককটেল উদ্ধার করা হয়। আর ওই মানচিত্রে হিলি-হাকিমপুর পৌর মেয়র জামিল হোসন চলন্ত এবং পাঁচবিবি পৌর মেয়র হাবিবুর রহমানের নাম লেখা রয়েছে বলে জানা গেছে।   এ প্রসঙ্গে হিলি হাকিমপুর পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত সাংবাদিকদের বলেন, এটি টার্গেট কিলিংয়ের একটি অংশ। তারা সীমান্তবর্তী এলাকার মেয়রদের হত্যা করে দেশে-বিদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করাতে চায়। অপরদিকে একই দিন রাত ৯টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিনাজপুর র্যাব ১৩ এর কমান্ডার মেজর মাহামুদের নেতৃত্বে র্যাবের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হিলি সীমান্তের ২৮৫ মেইন পিলার ঘেঁষা কামাল গেট নামক স্থানে কয়েকজন চোরাকারবারিকে ধাওয়া করে এক কেজি গান পাউডার উদ্ধার করে। এর সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ৩ জনকে আটক করা হয়। এর কিছুদিন আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি হিলির চারমাথা এলাকার নর্দান আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে ৩টি বিদেশি পিস্তল, ৩ রাউন্ড গুলি এবং এক লাখ ভারতীয় রুপি উদ্ধার করে বিজিবি।

এ ব্যাপারে স্থানীয়রা বলছেন, বিজিবি ও র্যাব সদস্যরা অভিযান চালিয়ে দু’একটি চালান উদ্ধার করলেও এর বেশির ভাগ অস্ত্রের চালান চলে যাচ্ছে দেশের অভ্যন্তরে সন্ত্রাসীদের হাতে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow