Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : সোমবার, ১১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০৯
নোয়াখালীতে আ.লীগে সংঘর্ষ গুলি ৬ পুলিশসহ আহত অর্ধশতাধিক
নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীর হাতিয়ায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া সংঘর্ষ ও গুলি বিনিময় হয়েছে। হাতিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি অধ্যাপক ওয়ালী উল্যাহ ও আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি মোহাম্মদ আলীর সমর্থকদের মধ্যে গতকাল এ ঘটনা ঘটে। এতে হাতিয়া থানার ছয় পুলিশ সদস্যসহ আহত হন অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী। গুরুতর আহত ১৫ জনকে হাতিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন। জানা যায়, হাতিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী ও জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসের প্রতিবাদে সমাবেশ ডাকা হয়। অ্যাড. সাইফুদ্দিনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক ওয়ালি উল্যাহ। বক্তব্য দেন— মহি উদ্দিন, আ. হালিম আজাদ, কামাল উদ্দিন প্রমুখ। বেলা ১১টার দিকে সোনাদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে শতাধিক নেতা-কর্মী সমাবেশস্থলে আসার পথে তাদের ওপর গুলি বর্ষণ ও হামলা চালায় মোহাম্মদ আলী সমর্থরা। এ সময় সংঘর্ষে আহত হন ৫০ জন। এ ছাড়া লক্ষ্মীদিয়ায় রাস্তা অবরোধ করে মোহাম্মদ আলী সমর্থিতরা দফায় দফায় হামলা চালায়। এ সময় হাতিয়া থানার ওসি, এক এসআই ও চার কনস্টেবলসহ বেশ কজন জখম হন। এদিকে মোহাম্মদ আলীর কর্মীদের বাধার মুখে নিঝুমদ্বীপের চেয়ারম্যান মেরাজ উদ্দিনসহ কিছু নেতা-কর্মী সভাস্থলে আসতে পারেনি। নরসিংদীতে আহত নেতার মৃত্যু : নরসিংদী প্রতিনিধি জানান, রায়পুরার চানপুর ইউনিয়নে প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষে আহত এক নেতা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। তার নাম আবদুর রহিম (৩৫)। তিনি চানপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। সংঘর্ষে রহিমের বাবা নাজিম উদ্দিন গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। জানা যায়, ঈদের আগে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ. কাদির ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবুল মিয়ার সমর্থকদের কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এর জেরে গত শুক্রবার বাবুলের সমর্থকরা কালিকাপুর গ্রামে অস্ত্র, ককটেল নিয়ে হামলা চালিয়ে প্রায় ১০০ বাড়িঘরে ভাঙচুর লুটপাট করে। ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করে কয়েকজনকে। এদের মধ্যে আহত আবদুর রহিমকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল মারা যান। এদিকে গতকাল সকালেও বাবুলের সমর্থকরা প্রতিপক্ষের বাড়িঘরে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow