Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : সোমবার, ১১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ জুলাই, ২০১৬ ০০:১১
ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত
কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত
পটুয়াখালীর কলাপাড়ার বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ শ্যালো ইঞ্জিনচালিত ট্রলারে যাতায়াত করেন —বাংলাদেশ প্রতিদিন

ঝুঁকি নিয়ে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ শ্যালো ইঞ্জিনচালিত ট্রলারে যাতায়াত করছে। যোগাযোগের অন্য কোনো বিকল্প ব্যবস্থা না থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ যাতায়াতে বাধ্য হচ্ছে। ভুক্তভোগী লোকজন এ নৌ-রুটে সি ট্রাক চালু করার দাবি জানিয়েছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এসব ট্রলার পৌর শহরের গোডাউন ও স্লুুইজ ঘেট এলাকা থেকে প্রতিদিন পার্শ্ববর্তী উপজেলা রাঙ্গাবালীর মৌডুবি, বড়বাইদা, ছোটবাইদা, নিশানবাড়িয়া, চালিতাবুনিয়া, তক্তাবুনিয়াসহ বিভিন্ন দুর্গম চরাঞ্চলে ঝড়-তুফানের মধ্যে ছেড়ে যায়। উপজেলার সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বুড়াগৌরাঙ্গ, আগুনমুখা, ডিক্রি, রামনাবাদ ও আন্ধারমানিক নদী পাড়ি দেয় সাধারণ মানুষ। কোনো নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে বাণিজ্যিকভাবে যাত্রীবহনের কাজে নিয়োজিত এ সব শ্যালো ইঞ্জিনচালিত ট্রলারগুলো অতিরিক্ত যাত্রী ও মালামাল বহন করে চলাচল করছে। চরাঞ্চল মৌডুবি বাজারের ব্যবসায়ী স্বপন মিয়া জানান, সপ্তাহে তিন-চার বার ব্যবসায়িক কাজে কলাপাড়া উপজেলা সদরে আসতে হয়। কোনো উপায় না থাকায় তাই নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রী ট্রলারে নিতে বাধ্য হচ্ছি।

পটুয়াখালী নৌ-বন্দর কর্মকর্তা মো. আবদুল রাজ্জাক জানান, শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নৌকা ও  ট্রলার দিয়ে মানুষ পরিবহন করা আইনবিরোধী। এগুলো বন্ধে আমরা প্রায় সময় অভিযান পরিচালনা করে থাকি। এ ছাড়া ১৫ মার্চ থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত এসব ট্রলার নদী পথে চলাচলে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow