Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৫ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ জুলাই, ২০১৬ ০২:৫৭
বাস হেলপারের পিটুনিতে স্কুলছাত্র নিহত
নরসিংদী প্রতিনিধি
বাস হেলপারের পিটুনিতে স্কুলছাত্র নিহত
পিটুনিতে নিহত স্কুলছাত্র

নরসিংদীর মনোহরদীতে ৯ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে  না ফেরার দেশে চলে গেল অষ্টম শ্রেণির ছাত্র জিহান (১৪)। গতকাল সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ময়নাতদন্ত শেষে জিহানের লাশ বাড়িতে এনে দাফন করা হয়েছে। জিহান মনোহরদী উপজেলার শুকুন্দী গাছুয়ারকান্দা গ্রামের প্রবাসী মোস্তফা কামাল ও সাবেক ইউপি সদস্য সেলিনা বেগমের ছোট ছেলে। সে শাহাবুদ্দিন মেমোরিয়াল একাডেমির অষ্টম শ্রেণির মেধাবী ছাত্র ছিল। ঈদের দিন আনন্দ উপভোগ করতে বন্ধুদের সঙ্গে ভৈরব ব্রিজ ও আশপাশের এলাকায় বেড়াতে যায় জিহান। বেড়ানো শেষে সেখান থেকে বাসে করে বাড়িতে আসার পথে শিবপুর উপজেলার সিঅ্যান্ডবি বাসস্ট্যান্ডে এসে গাড়ির চালক তাদের নামিয়ে দেন। গন্তব্য স্থানে পৌঁছার আগেই গাড়ি থেকে নামিয়ে দেওয়ায় বাসের হেলপারের সঙ্গে জিহান ও তার বন্ধুদের কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় বাসের হেলপার ও স্থানীয় মোহরপাড়া গ্রামের কাজল মিয়ার ছেলে রবিন, রুহুল আমিনের দুই ছেলে হাবিবুল্লাহ ও মেহেদী, নুরুল ইসলামের ছেলে শাকিল ও দোপাত্তর গ্রামের হাসেম গাছের ডাল নিয়ে হামলা করে। হামলার সময় বন্ধুরা দৌড়ে পালিয়ে গেলেও জিহানকে আটকে ফেলে তারা। এ সময় সন্ত্রাসীরা জিহানকে এলোপাতাড়ি পিটুনি দেয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লাইফসাপোর্টে রাখার ৯ দিন পর গতকাল সকালে সে মারা যায়। এদিকে গত রবিবার সন্ধ্যায় জিহানের মা সেলিনা বেগম বাদী হয়ে শিবপুর থানায় চারজনকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow