Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:০৫
মেঘনায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, গরুর হাটের ইজারা বন্ধ
কুমিল্লা প্রতিনিধি

কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার লুটেরচর অস্থায়ী গরুর হাট ইজারা নিয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থক ইউপি চেয়ারম্যান ও  উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও থানায় চাঁদাবাজির মামলা হয়েছে। এসব কারণে বৃহস্পতিবার আইন শৃংখলার অবনতির বিষয় উল্লেখ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুটেরচর অস্থায়ী গরুর হাট ইজারা বন্ধ করে দিয়েছেন।

এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। এলাকাবাসী ও উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার উপজেলার সবচেয়ে বড় অস্থায়ী গরুর হাট ইজারা নিয়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম ও লুটেরচর ইউপি চেয়ারম্যানের  সানাউল্লাহ সিকদারের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এর জের ধরে সানাউল্লাহ চেয়ারম্যান গ্রুপ থানায় চাঁদাবাজি মামলা করে। সংঘর্ষের কারণে কোনো পক্ষই টেন্ডার জমা দিতে না পারায় বুধবার পুনরায় টেন্ডার আহবান করা হয়। ওই দিনও উভয় পক্ষ অস্ত্রের মহড়া দেয়, সেদিনও কোনো পক্ষ টেন্ডার জমা দিতে পারেনি।   লুটেরচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সানাউল্লাহ সিকদার বলেন, আমার ইউনিয়নে অবস্থিত বাজারটিতে কিছু বেকার যুবক শিডিউল কিনে জমা দিতে গেলে তাদের নিকট থেকে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম দেড় লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। টাকা না দেওয়ায় টেন্ডার জমা দিতে বাধা দেয়। এতে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের ১০ জন আহত হন। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম বলেন, আমরা চেয়েছি সরকারের রাজস্ব বাড়াতে এবং সর্বোচ্চ দরদাতাকে বাজারটি ইজারা দিতে। তারা তাদের ইচ্ছামতো নিয়ে যেতে চাওয়ায় বিশৃঙ্খলার ঘটনা ঘটে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহীনা আক্তার সুমি বলেন, ওই বাজারটি নিয়ে সম্প্রতি মামলা ও কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। ইজারা দিলে আইন শৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কা রয়েছে। তাই ইজারা দেওয়া হয়নি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow