Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০১:১৫
দুই বছর ধরে বিদ্যালয় মাঠে হাঁটুপানি
নালিতাবাড়ী প্রতিনিধি
দুই বছর ধরে বিদ্যালয় মাঠে হাঁটুপানি
শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌরসভা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় —বাংলাদেশ প্রতিদিন

শেরপুরের নালিতাবাড়ী শহরে অবস্থিত পৌরসভা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না  থাকায় দুই বছর ধরে হাঁটুপানি মাড়িয়ে প্রতিদিন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী-শিক্ষকরা ক্লাস করছেন। মাঠে খেলাধুলা নয়— এলাকার ছেলে-মেয়েরা মাছ শিকার করেন।

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, ২০০১ সালে পৌর শহরের কালিনগর এলাকায় ৫০ শতাংশ জমির উপর বিদ্যালয়টি স্থাপন করা হয়। বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী রয়েছে ৩৫০ জন। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় দুই বছর ধরে বিদ্যালয় মাঠে ও ভবনে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। একটি ক্লাস কক্ষে পার্টিশন দিয়ে দুটি শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়া হয়। দুই বছর আগে বাইপাস সড়কের উপর সেতু দিয়ে বিদ্যালয় ও আশপাশের পানি নিষ্কাশন হত। কিন্তু দুই লেন সড়ক প্রশস্তকরণ করায় সেই সেতুটি ভেঙে ফেলা হয়। এর পর থেকে পানি নিষ্কাশনের কোনো  ব্যবস্থা না থাকায়  সামান্য বৃষ্টিতে বিদ্যালয়ে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষ গত বছর নভেম্বর মাসে সড়ক ও জনপথের (সওজ) নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে আবেদন করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। প্রধান শিক্ষক মো.আমিনুল ইসলাম বলেন, পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় দুই বছর ধরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। সওজর কাছে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে  জানানো হয়েছে। শেরপুর সওজর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মাসুদ মাহমুদ সুমন বলেন, একাধিকবার পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল কিন্তু বিদ্যালয় ও আশপাশের জমি নিচু থাকায় এবং বিদ্যালয়ের পেছনে স্থায়ীভাবে বাড়ি-ঘর ও সড়ক থাকায় কালভার্ট নির্মাণ করা সম্ভব হয়নি। জুনে দুই লেন সড়কের উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইউএনও তরফদার সোহেল রহমান বলেন, ‘বিদ্যালয়ে জলাবদ্ধতার বিষয়টি দেখেছি। পৌরসভার মেয়রকে সঙ্গে নিয়ে জলাবদ্ধতা নিরসনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow