Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:১৯
হবিগঞ্জে গার্ড নাটোরে ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার
হবিগঞ্জ ও নাটোর প্রতিনিধি

হবিগঞ্জে পূবালী ব্যাংকের প্রধান শাখার এটিএম বুথ থেকে পুলিশ দায়িত্বরত সিকিউরিটি গার্ডের লাশ উদ্ধার করেছে। গতকাল বেলা সাড়ে ৩টার দিকে তাকে উদ্ধার করা হয়। গার্ডের নাম আবদুল হক, তিনি পৌর এলাকার উমেদনগর গ্রামের মৃত আতর আলীর ছেলে। কীভাবে তার মৃত্যু হয়েছে— তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। জানা গেছে, আবদুল হক ছয় মাস যাবৎ পূবালী ব্যাংকের প্রধান শাখার এটিএম বুথে সিকিউরিটি গার্ডের দায়িত্ব পালন করছিলেন। গতকাল সকাল ৭টায় তিনি এটিএম বুথে দায়িত্ব পালনের জন্য আসেন। বেলা ১টার দিকে এক ব্যক্তি বুথ থেকে টাকা তুলতে এসে লাশ দেখতে পান। পরে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইয়াছিনুল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন। এএসপি রাসেলুর রহমান জানান, আবদুল হকের গায়ে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। কী কারণে তিনি মারা গেলেন— তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য লাশ পোস্ট মর্টেম করা হচ্ছে। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানায়, বুথ ও ব্যাংকেরও কোনো কিছু খোয়া যায়নি। পূবালী ব্যাংকের কর্মকর্তা আলী আজমান খান জানান, স্ট্রোক থেকে গার্ড আবদুল হকের মৃত্যু হতে পারে। এদিকে নাটোরের বাগাতিপাড়ায় সাত দিন ধরে নিখোঁজ আবদুর রউফ (৪৫) নামে এক আম ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, গতকাল সকালে উপজেলার জামনগরের ভিতরভাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাদ থেকে তার পচা ও গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। আবদুর রউফ একই এলাকার ভিতরভাগ গ্রামের মৃত শুকুর আলীর ছেলে। তার ভগ্নিপতি আবদুল মালেক জানান, গত সোমবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিলেন আবদুর রউফ। পরদিন মঙ্গলবার সকালে বাগাতিপাড়া থানায় এ বিষয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। কিন্তু তার কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। ব্যবসা সংক্রান্ত কারণে  কেউ তাকে হত্যা করে থাকতে পারে।

 তিনি আরও জানান, দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ায় এলাকার লোকজন গিয়ে ছাদের ওপর তার পচা ও গলিত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। পরে বাগাতিপাড়া থানার পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, লাশের পাশে একটি কীটনাশকের বোতল পাওয়া  গেছে। এতে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে যে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে সঠিক কারণ জানতে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর কারণ সঠিকভাবে জানা যাবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow