Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:২৪
মাদকে ভাসছে বোয়ালমারী
ফরিদপুর প্রতিনিধি

মাদকের নেশায় ‘বুঁদ’ হয়ে থাকছে বোয়ালমারীর উচ্চবিত্ত থেকে শুরু করে নিম্ন শ্রেণির হাজারো মানুষ। মাদকের নেশায় আসক্তদের তালিকায় রয়েছেন সরকারি কর্মকর্তা, শিক্ষক, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ। বর্তমানে বোয়ালমারীতে হাত বাড়ালেই মিলছে বিভিন্ন প্রকারের মাদকদ্রব্য। তবে ফেনসিডিল, ইয়াবা আর গাঁজার চাহিদা বোয়ালমারীতে বেশি বলে এক অনুসন্ধানে জানা গেছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রশাসনের নাকের ডগায় মাদকদ্রব্য বিক্রি ও সেবন হলেও তারা দেখেও না দেখার ভান করে। ক্ষমতাসীন দলের নাম ব্যবহার করে কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বোয়ালমারীতে মাদকের ব্যবসা করছেন এমন তথ্যও পাওয়া গেছে। মাদক বিক্রির তালিকায় প্রভাবশালী পরিবারের সন্তানরা জড়িত বলে জানা গেছে। প্রভাবশালীদের কারণেই প্রশাসন রয়েছে ‘নীরব’। দিনের পর দিন প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসা চলে আসার কারণেই বোয়ালমারী এখন মাদকে সয়লাব হয়ে আছে। প্রতিনিয়ত বাড়ছে মাদকসেবীর সংখ্যা। ফলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সচেতন অভিভাবকরা। মাদক বিক্রি ঠেকাতে কয়েকজন উদ্যোগ নিলেও প্রভাবশালীদের কারণে তা ভেস্তে গেছে। বোয়ালমারীর ‘ছোলনা’ গ্রামকে মাদকের আখড়া বলে অভিহিত করেছেন অনেকেই। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক ব্যক্তি বলেছেন, বোয়ালমারীতে কমপক্ষে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি মাদকের ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। তা ছাড়া মাদকের ব্যবসায় লগ্নি আছে বেশ কয়েকজনের। মূলত প্রভাবশালী কয়েক ব্যক্তির টাকায় কেনা হয় মাদক। আর ডেলিভারিম্যানের সাহায্যে মাদক বিক্রি হয় বিভিন্ন স্পটে। প্রতিদিন কয়েক লাখ টাকার মাদক বিক্রি হয় বোয়ালমারীতে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বোয়ালমারীতে মাদকদ্রব্য আসে যশোর, ঝিনাইদহ থেকে। যশোর-ঝিনাইদহ থেকে নড়াইল হয়ে মধুমতি নদী পার হয়ে বোয়ালমারীতে আসছে মাদক। মাদক ব্যবসায়ীদের ধরে আইনের আওতায় আনার দাবি সচেতন বোয়ালমারীবাসীর।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow