Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • দক্ষিণ কোরিয়ার সাংবাদিকদের নিজস্ব পারমাণবিক পরীক্ষাকেন্দ্র পরিদর্শনের অনুমতি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া
  • সাতক্ষীরায় বিরল রোগে আক্রান্ত কিশোরী মুক্তামণি বুধবার সকালে মারা গেছে
  • সারা দেশে মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে আট জেলায় 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত ৯
  • যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্প বলেছেন, ১২ জুন সিঙ্গাপুরে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে পূর্বনির্ধারিত বৈঠকটিও নাও হতে পারে
  • সুন্দরবনের ৩ জলদস্যু বাহিনীর ৫৭ সদস্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন
প্রকাশ : শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪৮
পুলিশকে মারপিটের অভিযোগে মামলা নারীসহ আটক ৫
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে হাসিলহোসেন গ্রামের বিয়েবাড়ীতে অভিযান চালিয়ে একটি নারী নির্যাতন মামলার প্রধান আসামি ইমান আলীকে আটক করায় আসামি পক্ষের লোকজন এস আইসহ তিন পুলিশ সদস্যকে মারপিট করে আসামি ছিনতাইসহ পুলিশকে আটকে রাখার অভিযোগে মামলা হয়েছে। আহত পুলিশের এস আই সেলিম রেজা বাদী হয়ে ২১ জন নামীয়সহ আরও ২৫-৩০ জনকে আসামি করে সরকারি কাজে বাধা দেওয়া ও আসামি ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে রায়গঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন। পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে এ মামলায়  পাঁচজনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো— এরান্দহ গ্রামের মিনহাজ (২২), গংরামপুর গ্রামের মাসুম (২৬) হাসিলহোসেন গ্রামের আসমা খাতুন (২৪), চ্যামেলী খাতুন (২৫) ও রোজিনা বেগম (২৮)। রায়গঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তবে আটকদের মধ্যে কারো নাম এজাহারে নেই বলেও এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন। এই মামলায় অজ্ঞাত আসামি হিসেবে এদের কোর্টে সোপর্দ করা হয়। এদিকে আসামি ইমান আলীর স্বজনরা জানিয়েছেন, পুলিশ বিয়েবাড়ীতে ঢুকে তছনছ করে। এক পর্যায়ে এক নারীকে বন্দুক দিয়ে আঘাত করায় সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। এতে স্থানীয় লোকজন উত্তেজিত  পুলিশের উপর চড়াও হয়। আর এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ হয়রানিমূলক মামলা দায়েরের পর নিরীহ নারী-পুরুষকে আটক করেছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow