Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০
পর্যটন কেন্দ্রে কাটেনি ঈদের আমেজ
প্রতিদিন ডেস্ক
পর্যটন কেন্দ্রে কাটেনি ঈদের আমেজ
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনে দর্শনার্থী —বাংলাদেশ প্রতিদিন

ঈদুল আজহার চার দিন অতিবাহিত হলেও বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে রয়ে গেছে ঈদের আমেজ। নারায়ণগঞ্জে সোনারগাঁ ও মানিকগঞ্জ শহরের বেওথা ঘাটে নবনির্মিত কালীগঙ্গা সেতুতে গতকাল পর্যটকের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।

অনেকে এসেছেন সপরিবারে। কেউ কেউ বন্ধুদের সঙ্গে আসছেন আনন্দে একটু সময় কাটাতে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

সোনারগাঁ : দেশের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে গতকালও ছিল পর্যটকের ঢল। এখানকার লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন, পানাম নগরী, বাংলার তাজমহল, পিরামিড ও বিপণী কেন্দ্রে এখনো রয়েছে প্রাণচাঞ্চল্য। ব্যবসায়ীদের দম ফেলার ফুরসত নেই। বিলাশবহুল ফোরস্টার হোটেল রয়েল রিসোর্সের সবকক্ষ আগাম বুকিং হয়ে গেছে। ছয় বিবিরি মাজারসহ তীর্থস্থানগুলোতেও প্রচুর সংখ্যক দেশি-বিদেশি পর্যটক ভ্রমণ করছেন। সোনারগাঁ সুপার মার্কেটের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, এবার ঈদের ছুটিতে বিপুলসংখ্যক পর্যটকের সমাগম হওয়ায় বেচা-বিক্রি ভালো। সোনারগাঁ থানার ওসি (তদন্ত)  এসএম ওবায়দুল হক জানান, পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সাদা পোশাকের পুলিশও দায়িত্ব পালন করছে। মানিকগঞ্জ : ঈদের আনন্দ যেন শেষ হচ্ছে না। বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত সব বয়সের লোকজন ভিড় করছেন  মানিকগঞ্জ শহরের বেওথা ঘাটে নবনির্মিত কালীগঙ্গা সেতুতে। শহরের কোথাও কোনো পার্ক বা খোলা জায়গা না থাকায় বিনোদন পিপাসুরা তাই হাফ ছেড়ে বাঁচার জন্য এই ব্রিজটিতে ভিড় করছেন।

দর্শনার্থীরা জানান, এখানে  আকাশ যেন নদীর সঙ্গে মিশে গেছে। পাখিরা সন্ধ্যা হলে বাড়ি ফিরে যাচ্ছে এ দৃশ্য না দেখলে বোঝা যাবে না। ঘিওর উপজেলার সারথী আক্তার এসেছেন তার বন্ধুকে নিয়ে। তিনি জানান, এখানে এত লোকের সমাগম হলেও কোনো টয়লেট বা বসার ব্যবস্থা। রাত পর্যন্ত লোকজন থাকলেও এখানে কোনো ধরনের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়নি বলে অভিযোগ আগন্তুক কয়েকজন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow