Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০২:৩৯
মিলছে না কাঙ্ক্ষিত চিকিৎসা সেবা
সোনারগাঁ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
সোনারগাঁ প্রতিনিধি

সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কাঙ্ক্ষিত চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। ফলে দিন দিন এই হাসপাতাল থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন রোগীরা।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মোগরাপাড়া টহল পুলিশ গত বৃহস্পতিবার রাস্তার পাশে ময়লার স্তূপের মধ্যে এক নারীকে পড়ে থাকতে দেখেন। তাকে উদ্ধার করে সোনারগাঁ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্মরত ডাক্তাররা তার চিকিৎসা না করে মেঝেতে ফেলে রাখেন। পরে স্থানীয় একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। এরপর ওই নারীকে পাঠানো হয় ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে। জানা যায়, সোনারগাঁ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকদের অনুপস্থিতি, দালালের দৌরাত্ম্য বেড়েই চলছে। ফলে কাঙ্ক্ষিত চিকিৎসাসেবা পাচ্ছেন না রোগীরা। বাধ্য হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন অন্যত্র। তাছাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবেশও অত্যন্ত নোংরা। ৩১ শয্যার এ হাসপাতালে বর্তমানে পুরুষ ওয়ার্ডে ছয় ও মহিলা ওয়ার্ডে চারজন রোগী ভর্তি আছেন। চিকিৎসা নিতে আসা একজন বলেন, ‘এখানে চিকিৎসকের দেখা পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। তাছাড়া দালালের শরণাপন্ন না হলে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া যায় না। এ কারণে এখানে কেউ আসতে চান না। ’

সরেজমিনে জরুরি বিভাগে দেখা যায়, দুর্ঘটনায় আহত একজনের পায়ে ব্যান্ডেজ করছেন ওয়ার্ড বয় কাম এমএলএসএস মোস্তফা মিয়া ও অফিস সহকারী আবদুল মান্নান। দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক বসে আছেন। মোস্তফা মিয়া বলেন, ‘আমরাই সব সময় এ বিভাগে আনা রোগীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিই। ’ জানা যায়, হাসপাতালটিতে বর্তমানে ২৫ জন চিকিৎসক কর্মরত। দায়িত্বপ্রাপ্ত উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ইকবাল বাহার কিছুদিন ধরে ছুটিতে আছেন। আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা এহসানুল হক বলেন, যেসব চিকিৎসক নিয়মিত অফিসে আসেন না, তাঁদের সতর্ক করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু নাছের জানান, একজন রোগীকে চিকিৎসা না দিয়ে মেঝেতে ফেলে রাখা খুবই দু:খজনক। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে।

up-arrow