Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৩:০৫
সেবিকাকে টাকা না দেওয়ায় চিকিৎসায় অবহেলা
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাসিরনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক সেবিকার বিরুদ্ধে টাকা না দেওয়ায় দায়িত্বে অবহেলা ও ভুল চিকিৎসা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গতকাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চৌধুরী মোয়াজ্জেম আহমেদ বলেন, ওই ছাত্রীর চিকিৎসার বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে। জানা যায়, গত ২২ সেপ্টেম্বর বাড়ির পাশে ডোবায় গোসল করতে গিয়ে পানিতে লাফ দেয় স্কুলছাত্রী হোসনা। এ সময় বাঁশের কঞ্চির আঘাতে তার গোপনাঙ্গে কিছু অংশ কেটে যায়। নাসিরনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভারপ্রাপ্ত আবাসিক চিকিৎসক রনি রায় প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। পরে ক্ষত অংশে সেলাইয়ের জন্য তাকে অস্ত্রোপচার কক্ষে নিয়ে যায়। এ সময় দায়িত্বরত সেবিকা নয়ন মনি ক্ষত অংশ সেলাই বাবদ এক হাজার টাকা দাবি করেন। টাকা দিতে দেরি হওয়ায় দেড় ঘণ্টা তাকে অস্ত্রোপচার কক্ষে ফেলে রাখে। পরে ছাত্রীর বাবা সোহরাব মিয়া ধার ৭০০ টাকা হাতে দিলে চিকিৎসা শুরু করেন নয়ন মনি। এরপর ক্ষতস্থানে ছয়টি সেলাই দিয়ে তাকে বাড়ি নিয়ে যেতে বলেন ওই সেবিকা। ওই ছাত্রীর মা বলেন, ‘ভালোভাবে সেলাই না করায় কাটা অংশ দিয়ে বাতাস ও মলমূত্র বের হচ্ছিল। গত শনিবার পুনরায় হাসপাতালে ভর্তি করাতে চাইলে নয়ন মনি আরও দুই হাজার টাকা দাবি করেন। ভর্তির পর বিনা চিকিৎসায় তাকে তিন দিন ফেলে রাখেন। মঙ্গলবার পুনরায় সেলাই করে মেয়েকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন নয়ন মনি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow