Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ অক্টোবর, ২০১৬ ০১:৫৩
যত্রতত্র অটোস্ট্যান্ডে দুর্ভোগ
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি

মৌলভীবাজার শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ব্যাঙের ছাতার মতো গড়ে উঠেছে সি হচ্ছে শহরের সুন্দর পরিবেশ। যানজট এখন মৌলভীবাজার সদরের নিত্যসঙ্গী।

বাড়ছে জনদুর্ভোগ ও দুর্ঘটনা।

জানা যায়, জেলা শহরের কুসুমবাগে ১০টি, শমসেরনগর রোডে চারটি, কলেজ পয়েন্টে একটি, টিসি মার্কেটে সাতটি, চাঁদনীঘাটে আটটি, কোর্ট পয়েন্টে একটি, বাজার টার্নিং পয়েন্টে তিনটিসহ ছোট-বড় বিভিন্ন পয়েন্টে সড়কের ওপর অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে ভাসমান অটো স্ট্যান্ড। প্রতিনিয়ত সড়কের ওপর যাত্রী ওঠানামা করায় যানজট লেগেই থাকে। ফুটপাথ দিয়ে চলাফেরা করতে সমস্যা হচ্ছে পথচারীদের। এসব অবৈধ ও ভাসমান স্ট্যান্ডকে পুঁজি করে কিছু ট্রাফিক পুলিশের কর্মকর্তা লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক অটো-চালক জানান, ‘আমরা গাড়িপ্রতি মাসে ১০০ টাকা হারে ট্রাফিক পুলিশকে দেই। এর পরও বিভিন্ন সময় রাস্তায় গাড়ি আটকিয়ে টাকা আদায় করা হয়। ৩৪টি স্ট্যান্ডে প্রায় চার হাজার গাড়ি তালিকাভুক্ত রয়েছে। ট্রাফিক পুলিশের সেলামি ও মালিককে ভাড়া দিয়ে কোনো রকম দিন কাটছে আমাদের। ’ মৌলভীবাজার জেলা সিএনজিচালিত অটোরিকশা শ্রমিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সেলিম মিয়া বলেন, ‘ট্রাফিক পুলিশের অত্যাচারে অমরাও অতিষ্ঠ। বিভিন্নভাবে তাদের ম্যানেজ করে চলতে হয়। ’ মৌলভীবাজার সদরের ট্রাফিক সার্জন মাহফুজ আলম মাসিক চাঁদার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি এ ধরনের কাজে জড়িত নই। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow