Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৩৫
এএসপির বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণ দুর্নীতির অভিযোগ
বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনার সহকারী পুলিশ সুপার-এসএসপি (সদর সার্কেল) কাজী আবদুল কাইউম ও তালতলী থানার এসআই মনিরের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণ, দুর্নীতিসহ বেআইনি কর্মকাণ্ডের অভিযোগ করা হয়েছে। বরগুনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে গতকাল এ অভিযোগ করেন তালতলী উপজেলার মেনিপাড়ার ওবায়দুল ঘরামী নামে এক ভুক্তভোগী।

ওবায়দুল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে প্রতিবেশীদের সঙ্গে তাদের জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। এর জেরে গত ২৭ মে প্রতিপক্ষ তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে ওবায়দুলের বাবা রহমান এবং ভাই আল আমিন গুরুতর আহত হন। এ ঘটনায় ৩০ মে তালতলী থানায় হত্যাচেষ্টা মামলা করেন ওবায়দুল। তার দাবি, বিবাদীরা এ মামলা থেকে রেহাই পেতে নিজেরা ব্লেড দিয়ে মাথা কেটে হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তারা থানায় মামলা দিতে গেলে পুলিশ নিতে রাজি না হওয়ায় ২ জুন আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মিথ্যা অভিযোগ করেন। বিচারক মামলাটি এজাহার হিসেবে নেওয়ার জন্য তালতলী থানার এসআইকে নির্দেশ দেন। ওবায়দুল বলেন, গত ২২ আগস্ট তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মনির থানায় ডেকে তাদের (ওবায়দুলের লোকজন) জানান, মামলায় বিচার পেতে হলে সার্কেল এএসপি এবং তাকে (মনিরকে) টাকা দিতে হবে। সে অনুযায়ী তারা ২৩ আগস্ট এএসপির বরগুনা অফিসে গিয়ে ১০ হাজার টাকা ঘুষ দেন। এরপরও আসামিদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে অন্যায়ভাবে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষের দেওয়া মিথ্যা মামলায় চার্জশিট দিয়েছে। অথচ তাদের করা মামলায় চার্জশিট দেয়নি। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান দুলাল ফরাজী জানান, যাদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেওয়া হয়েছে, মূলত তারাই হামলার শিকার হয়েছেন। অভিযুক্ত এএসপি কাজী আবদুল কাইউম বলেন, ‘ওখানে দুটি মামলা হয়েছে। একটির চার্জশিট হয়েছে, অন্যটিও হবে। এখানে ঘুষ লেনদেন করার প্রশ্নই আসে না। এসব অভিযোগের কোনো সত্যতা নেই। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow