Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৩৯
বখাটের হাসুয়া ভেঙে দিল ছাত্রীর ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

দরিদ্রতা নিত্যসঙ্গি হলেও মা-বাবার আশা ছিল মেয়েকে লেখাপড়া শিখিয়ে ডাক্তার বানাবেন। মেয়ে মরিয়মও মা-বাবার স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দিতে শত কষ্টের মধ্যে লেখাপড়া চালিয়ে পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণিতে জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন।

দশম শ্রেণিতে পড়ছিলেন এক বুক আশা নিয়ে। কিন্তু মালেক নামে এক বখাটে ভেঙে দিয়েছে মরিয়মের স্বপ্ন। মালেকের হাসুয়ার তার হাত এখন অকেজো।

জানা যায়, চলতি বছরের ২৭ মে সকালে সদর উপজেলার বেহুলা অরুণবাড়ী গ্রামের দিনমজুর মোকবুল হোসেনের মেয়ে ও মহিপুর এসএএম উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী মরিয়মসহ চার বান্ধবী প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফিরছিলেন। এমন সময় বখাটে মালেক তাদের চারজনকেই কুপিয়ে জখম করে। এতে এক বান্ধবী কনিকা মারা যান। মরিয়মের ডান হাত দেহ থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজে তার হাতের অস্ত্রোপচার করে কোনো রকম জোড়া লাগানো হয়। দীর্ঘ চিকিৎসা শেষে গত সোমবার বাড়ি ফিরেছেন মরিয়ম। সামনে এসএসসি পরীক্ষা। এই পরীক্ষায় তিনি অংশ নিতে পারবেন কিনা অনিশ্চিত।

ওই ঘটনার পরই বখাটে মালেককে আটক করে পুলিশে দেন স্থানীয়রা। তার বিচার দাবিতে শুরু হয় আন্দোলন। কিন্তু ঘটনার চার মাস পার হলেও মেডিকেল রিপোর্ট না পাওয়ায় অভিযোগপত্র দিতে দেরি হচ্ছে বলে জানান, সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার ওয়ারেছ আলী।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow