Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৪৪
তল্লাশির নামে গরু বিক্রির টাকা নিয়ে গেলেন এসআই
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

শিবগঞ্জ থানার এসআই গাজী মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে এক বাড়িতে তল্লাশির নামে গরু বিক্রির টাকাসহ এক শিশুর জমানো ৫০ টাকাও নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গাজী মোয়াজ্জেম। গত ১৪ অক্টোবর শুক্রবার গভীর রাতে এসআই গাজী মোয়াজ্জেম কয়েকজন ফেনসিডিল ব্যবসায়ীকে নিয়ে তল্লাশি চালান উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়নের বাজিতপুর গ্রামের জেনারুল ইসলামের বাড়িতে। এ সময় তার বাড়িতে ঢুকে তল্লাশির নামে বাক্স থেকে গরু বিক্রির ১৯ হাজার টাকাসহ তার ছোট ছেলের জমানো ৫০ টাকাও নিয়ে যান বলে অভিযোগ করেছেন জেনারুলের স্ত্রী সাবিয়া বেগম। এ সময় কালাম নামে একজনের হাতে একটি ব্যাগে তিনি ফেনসিডিল দেখতে পান। তার ধারণা ফেনসিডিল দিয়ে ফাঁসানোর জন্যই পুলিশ জেনারুলকে খুঁজছিল। যদিও ওই সময় তার স্বামী জেনারুল বাড়িতে ছিলেন না। এদিকে জেনারুলের ছেলে শ্যামপুর এমএন ইংলিশ একাডেমির ২য় শ্রেণির ছাত্র আসাদুল হক জানায়, পুলিশ তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে তার বাবা কোথায় আছে জানতে চায়। সে বাবার খবর জানে না বলে জানালে তাকে বিছানা থেকে তুলে লাঠি দিয়ে পিটানোর হুমকি দেয় ওই দারোগা। আসাদুল আরও জানায়, পুলিশ তল্লাশি করার সময় বাক্স থেকে টাকা বের করে। এ ছাড়াও তার জমিয়ে রাখা ৫০ টাকাও নিয়ে যায়। অন্যদিকে ধোবড়া এলাকার রেসমি নামে এক নারী অভিযোগ করে বলেন, দারোগা মোয়াজ্জেম জনৈক কালামের সঙ্গে যোগসাজশ করে তার ছেলে সাগরকে অস্ত্র ও ফেনসিডিল ব্যবসায় বাধ্য করতে চায়। সাগর তাতে রাজি না হওয়ায় তাকে বিভিন্ন মামলা ও মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে কালাম।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow