Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০২:২১
নেশার টাকার জন্য শিশু বিক্রি : লাশ মিলল কূপে
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
নেশার টাকার জন্য শিশু বিক্রি : লাশ মিলল কূপে
শিশু জান্নাতুল

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে নেশার টাকার জন্য অপহূত শিশু জান্নাতুলকে (৪) হত্যার পর উপজেলা পরিষদের অদূরে পোস্ট অফিসের কাছে জঙ্গলের ভিতর একটি পরিত্যক্ত কূপের মধ্যে ইট ও মাটি দ্বারা চাপা দিয়ে রাখা হয়েছে। অপহরণকারী মাদকাসক্ত মঞ্জুকে রিমান্ডে আনার পর সে পুলিশের কাছে এ ধরনের স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

রাতে লাশ উদ্ধার করা সম্ভব না হওয়ায় পুলিশ নিহতের স্বজনদের সঙ্গে নিয়ে ওই এলাকাটি ঘিরে রেখেছে। সকালে লাশ উদ্ধার করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এ ছাড়া পুলিশ ঘটনার সঙ্গে নাজমুল ও বাবুল নামে আরও দুজনকে আটক করেছে। শিশু জান্নাতুল জামতৈল গ্রামের কুলি সরদার আনোয়ার হোসেনের মেয়ে।

কামারখন্দ থানার উপ-পরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, ৭ অক্টোবর শিশু জান্নাতুলকে একই গ্রামের মাদকাসক্ত মঞ্জু অপহরণ করে ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে নাজমুল নামে একজনের হাতে তুলে দেয়। পরে স্থানীয়রা মঞ্জুকে আটকে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ অভিযান চালিয়ে উল্লাপাড়ার কাওয়াক থেকে নাজমুলকে আটক করে। এ ছাড়া পুলিশ গতকাল মঞ্জুকে তিন দিনের রিমান্ডে নেয়। রিমান্ডে থাকা অবস্থায় মঞ্জু জানায়, শিশুটিকে হত্যার পর কূপের মধ্যে ইট ও মাটিচাপা দিয়ে রাখা হয়েছে। সে আরও জানায়, ঘটনার সঙ্গে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী বকুল, কাঙ্গাল ও লালন জড়িত। এ তিনজন তাকে হত্যার জন্য এবং নাম না বলার জন্য তিন লক্ষাধিক টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল। এর পরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে বকুলকে আটক করে। অন্য দুজনকে আটকের চেষ্টা চলছে।

তিনি বলেন, জঙ্গলের মধ্যে গর্তে চাপা দিয়ে শিশুটিকে রাখা হয়েছে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। কিন্তু অন্ধকারের মধ্যে উদ্ধারের সরঞ্জাম না থাকায় আগামীকাল (আজ) সকালে উদ্ধার করা হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow