Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩২
এখনো বই পায়নি শেরপুরের পাঁচ হাজার শিক্ষার্থী
নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

১ জানুয়ারি শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়ার কথা থাকলেও বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় মাধ্যমিকের পাঁচ হাজার শিক্ষার্থী এখনো সব বিষয়ের বই পায়নি। এসব ছাত্র-ছাত্রী নিয়মিত বিদ্যালয়ে উপস্থিত হলেও বই না থাকায় ক্লাস করতে পারছে না।

এটা পরীক্ষার ফলে প্রভাব ফেলতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শেরপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় মাধ্যমিক পর্যায়ে ৪২টি স্কুল ও ৩৬টি মাদ্রাসা রয়েছে। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩১ হাজার ৩৪৬ শিক্ষার্থীর বিপরীতে বই দরকার পাঁচ লাখ ৬৩ হাজার ২৫০টি। এরমধ্যে পাঁচ লাখ ২০ হাজার বই পাওয়া গেছে। সরবরাহ না থাকায় এখনো পাওয়া যায়নি ৪৩ হাজার ২৫০টি বই। ফলে পাঁচ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে নতুন বই বিতরণ সম্ভব হয়নি। বিশেষ করে প্রতিটি বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ বিজ্ঞান, সামাজিক বিজ্ঞান, ইসলাম শিক্ষা, হিন্দু ধর্ম এই সাত বিষয়ের কোনো বই পায়নি। এছাড়া ষষ্ঠ থেকে নবম প্রতিটি শ্রেণিতে দুই-একটি বিষয়ের বই বিতরণ বাকি রয়েছে। উপজেলার উচরং বন্দে আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী সুলতানা খাতুন জানায়, প্রায় দেড় মাস পার হতে চলেছে; অথচ গুরুত্বপূর্ণ সাত বিষয়ের বই নেই। এতে পড়ালেখায় বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে।

এক শিক্ষক জানান, ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত ১২টি বিষয়ের কিছু বই এখনো অনেক বিদ্যালয়ে পৌঁছেনি। বিষয়টি নিয়ে প্রতিনিয়ত স্থানীয় মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে যোগাযোগ করা হচ্ছে। তারাও বলতে পারছেন না কবে নাগাদ বইগুলো পাওয়া যাবে। সময়মত বই না পাওয়ায় শিক্ষার্থীরা যেমন বিদ্যালয়ে পাঠ্যগ্রহণ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, তেমনি সামনের পরীক্ষায় সিলেবাস শেষ করা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছে। শেরপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, বইয়ের কোনো সমস্যা নেই। সময়মত বিতরণ করা হবে।

up-arrow