Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:১১
গাইবান্ধায় স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা
গাইবান্ধা প্রতিনিধি

গাইবান্ধায় স্ত্রী অমেলা বেগম ওরফে পাখিকে (২৩) হত্যার পর স্বামী জালাল শেখ (৩৫) গলায় রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। পুলিশ গতকাল গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বিরিঞ্চি গ্রামে জালালের শয়ন ঘর থেকে দুজনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাইবান্ধা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

তাদের ৬ মাসের এক ছেলে সন্তান রয়েছে। তাকে তার দাদা-দাদির জিম্মায় রাখা হয়েছে। জালাল শেখ ওই গ্রামের খাজা  শেখের ছেলে ও পেশায় একজন ব্যাটারিচালিত ভ্যান চালক। গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত কুমার সরকার বলেন, পাখি বেগমের গলায় হাতের আঙ্গুলের চিহ্ন দেখা গেছে। এ কারণে ধারণা করা হচ্ছে শনিবার দিবাগত রাতের কোনো এক সময় জালাল তার স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। পরে তিনি গলায় রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন। তবে বিষয়টি ময়না তদন্ত রিপোর্ট ছাড়া পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। এ নিয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে।

কালীগঞ্জে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন : ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানান, কালীগঞ্জের রাড়িপাড়ায় নুর ইসলাম (৪৫) নামে এক কৃষককে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যা করেছে তার ভাই ও ভাতিজারা।

বসতভিটার বৈদ্যুতিক মিটার ভাঙাকে কেন্দ্র করে ঘটনাটি ঘটে শনিবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে। নুর ইসলাম ওই গ্রামের ফয়েজ উদ্দিনের ছেলে। ঘটনায় জড়িত অভিযোগে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। কালীগঞ্জ থানার ওসি জানান, নুর ইসলামের বড় ভাই নুর মোহাম্মদ শনিবার দিনগত রাত ৮টার দিকে ট্রাকে করে বাড়িতে ফার্নিচার নিয়ে আসছিলেন। ট্রাকে লেগে নুর ইসলামের বাড়ির মিটার ভেঙে যায়। এ নিয়ে রাতে দুই ভাইয়ের মধ্যে বাগিবতণ্ডা হয়। এ সময় নুর মোহাম্মদ নুর ইসলামের গলা চেপে ধরেন এবং তার ছেলেরা মারপিট শুরু করে। গুরুতর আহত নুর ইসলামকে কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপেক্সে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow