Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০৮
দুই ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৫৩ জনের নামে মামলা
যুবলীগ নেতা ফারুক হত্যা
নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বগুড়ার শিবগঞ্জে যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যার ঘটনায় দুই ইউপি চেয়ারম্যানসহ ২৩ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত আরও ৩০ জনকে আসামির করে থানায় মামলা করা হয়েছে। সোমবার রাতে ফারুকের বড় ভাই নয়ন মিয়া মামলাটি করেন।

আসামিদের মধ্যে রয়েছেন, শিবগঞ্জের বিহার ইউপি চেয়ারম্যান ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মহিদুল ইসলাম, রায়নগর ইউপি চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমেদ রিজু ও জলাশয়ের ভুয়া মালিক আবু তৈয়ব। ফিরোজ আহমেদ রিজু বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) আসনের জাতীর পার্টির এমপি শরিফুল ইসলাম জিন্নাহর শ্যালক বলে জানা গেছে। এদিকে ওই হত্যার ঘটনায় সোমবার সকালে বিহার ইউনিয়নের আলীগ্রাম থেকে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কনস্টেবল শাহীন মিয়াকে গ্রেফতার করেছে। এ নিয়ে তিনজনকে গ্রেফতার করা হলো। শিবগঞ্জ থানার ওসি (অপারেশন) জাহিদ হোসেন জানান, গ্রেফতার উত্তম কুমার, বিপ্লব দাস ও শাহীন তিনজনই এজাহারভুক্ত আসামি। তাদের আদালতের মাধ্যমে হাজতে পাঠানো হয়েছে। উল্লেখ, গত রবিবার রাতে বিহার ইউনিয়নের সংসারদীঘি-দবিলা এলাকায় জলাশয়ের মালিকানা নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে দুই ইউপি চেয়ারম্যানের সমর্থকদের ছুরিকাঘাতে ওমর ফারুক নিহত হন। শিবগঞ্জ থানার ওসি শাহিদ মাহমুদ খান মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow