Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৪৯
হাসপাতালের লিফটের নিচে নারীর লাশ
ফরিদপুর প্রতিনিধি

নিখোঁজের চার দিন পর ফরিদপুর শহরের ডায়াবেটিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের লিফটের নিচ থেকে সূর্য খাতুন (৬৫) নামের এক মহিলার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টার দিকে কোতোয়ালি থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা লাশটি উদ্ধার করেন।

নিহতের স্বজনরা এ ঘটনায় হাসপাতালের কেউ জড়িত থাকতে পারেন বলে ইঙ্গিত করেছেন। নিহতের স্বজনরা জানান, ৭ মার্চ সূর্য খাতুন ওই ডায়াবেটিক হাসপাতালের চতুর্থ তলায় ভর্তি হালিমা বেগম নামের তার এক স্বজনকে দেখতে আসেন। ওই দিন রাত ৯টার দিকে রোগীর জন্য ওষুধ আনতে তিনি নিচে নামেন। এর পর থেকেই তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। এ ব্যাপারে কোতোয়ালি থানায় বৃহস্পতিবার নিহতের স্বজন ইসমাইল বেপারি একটি জিডি করেন। এদিকে গতকাল বেলা ১১টার দিকে হাসপাতালের পুরাতন ভবনের ২ নম্বর লিফটের নিচ থেকে পচা গন্ধ বের হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অনুসন্ধান চালিয়ে লিফটের নিচে লাশটি দেখতে পায়। খবর দিলে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠান। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, সূর্য খাতুনকে নির্যাতনের পর হত্যা করা হয়েছে। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানান তারা। স্বজনদের আরও অভিযোগ, এ হত্যাকাণ্ডে হাসপাতালের কেউ জড়িত থাকতে পারেন। হত্যার আগে তাকে লাঞ্ছিত করা হয়েছিল কিনা তাও খতিয়ে দেখার দাবি তাদের। তা ছাড়া হাসপাতালের ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা কী কারণে বন্ধ ছিল এ বিষয়েও প্রশ্ন তুলেছেন স্বজনরা। ডায়াবেটিক হাসপাতালের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর আবদুস সামাদ জানান, ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। তবে এ বিষয়ে কিছুই বলতে পারবেন না।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাজিমউদ্দিন আহমেদ জানান, খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্তের পর আসল রহস্য জানা যাবে। নিহত সূর্য খাতুনের বাড়ি ফরিদপুর শহরতলির ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের বারখাদা গ্রামে। তার স্বামীর নাম মৃত মোকছেদ খাঁ। ময়নাতদন্তের পর লাশটি স্বজনদের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow