Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ মার্চ, ২০১৭ ০২:৩১
প্রতীক বরাদ্দ, নৌকা-ধানের শীষে উৎসবমুখর নগরী
কুমিল্লা প্রতিনিধি
প্রতীক বরাদ্দ, নৌকা-ধানের শীষে উৎসবমুখর নগরী

উৎসবমুখর পরিবেশে গতকাল কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আনুষ্ঠানিক প্রচারযুদ্ধ শুরু হয়েছে। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উভয় দলের কর্মী-সমর্থকদের ‘সাক্কু ভাইয়ের ধানের শীষ’, ‘সীমা আপার নৌকা’ স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে নগরীর অন্যতম প্রাণকেন্দ্র কান্দিরপাড়ের টাউন হল মিলনায়তন এবং এর মাঠ।

মেয়র সমর্থকদের পাশাপাশি ২৭টি ওয়ার্ডে ১১৪ জন সাধারণ কাউন্সিলর ও ৪০ জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের বাঁধভাঙা উল্লাসও ছিল চোখে পড়ার মতো।

বিএনপি প্রার্থীর অভিযোগ : ধানের শীষ প্রতীক হাতে পাওয়ার পর বিএনপি প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু অভিযোগ করে বলেন, সরকারদলীয় ও নৌকার প্রার্থী প্রতীক পাওয়ার আগেই মিছিল, মিটিং ও সমাবেশ করে জনগণের কাছে ভোট চেয়ে আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন। নির্বাচন কমিশন কর্মকর্তা সেদিকে খেয়াল রাখেননি।

আওয়ামী লীগ প্রার্থীর প্রত্যাখ্যান : আচরণবিধি লঙ্ঘন বিষয়ে বিএনপি প্রার্থীর অভিযোগের বিষয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আঞ্জুম সুলতানা সীমা বলেন, ‘মনিরুল হক সাক্কু সত্য কথা বলেননি। আমি যখন আচরণবিধি লঙ্ঘন করি তখন কেন তিনি অভিযোগ করেননি। আমি কুশল বিনিময় করতে গেলে সেখানে লোক জড়ো হলে এতে আমার তো কিছু করার নেই। ’

রিটার্নিং অফিসারের বক্তব্য : এ ব্যাপারে রিটার্নিং অফিসার রকিব উদ্দিন মণ্ডল বলেন, ‘নির্বাচনে সব প্রার্থী আমাদের কাছে সমান। আশা করি, সব প্রার্থী আমাদের দেওয়া নিয়ম মেনে চলবেন। আচারণবিধি লঙ্ঘন করবেন না। আমরা সবার প্রতি শ্রদ্ধাশীল। ’ তিনি বলেন, আগে যারা আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন তাদের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি এবং সতর্কতা নোটিস দিয়েছি। এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া গেলে তদন্তের পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow