Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শনিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৩১ আগস্ট, ২০১৮ ২৩:৩৪
বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা আমন চাষিদের
বদরগঞ্জ প্রতিনিধি

বৃষ্টির জন্য হাহাকার করছেন রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার আমন চাষিরা। পানির অভাবে এরই মধ্যে আমনের মাঠ ফেটে চৌচির হয়ে গেছে। ভরা বর্ষায় বৃষ্টিপাত না হওয়ায় কৃষকরা বাধ্য হয়ে শ্যালো মেশিন কিংবা পুকুর-বিল থেকে সেউতি দিয়ে অনেক কষ্টে আমন চারা রোপণ করেছিলেন। ভেবেছিলেন পরে বৃষ্টি হবে। বৃষ্টিও হয়েছিলো, তবে তা ছিল অতি সামান্য। ফলে আমন খেত নিয়ে বিপাকে পড়েছেন বদরগঞ্জের কৃষকরা। তারা চিন্তিত কাঙ্ক্ষিত ফসল উৎপাদন নিয়ে। উপজেলা কৃষি অফিস অবশ্য আশা করছে, কাঙ্ক্ষিত ফসল উৎপাদনের। কারণ হিসেবে তারা মনে করেন, ঈদের পর কিছু কিছু জায়গায় বৃষ্টি হয়েছে। যেহেতু এখনও সময় আছে, তাই আরও বৃষ্টি হতে পারে।

 উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর উপজেলায় আমনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯ হাজার ৫৮৩ হেক্টর। আবাদ হয়েছে ১৯ ৫৯৫ হেক্টর জমি। সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, আমন চারা রোপণের অনেক জমি ফেটে গেছে। খেত ঘাস আর আগাছায় ভরা। উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের কৃষক আরমানুজ্জামানের জানান, বৃষ্টি না হওয়ায় বাধ্য হয়ে ৫ বিঘা জমিতে শ্যালো মেশিনে সেচ দিয়ে আমন চারা রোপণ করেছিলাম। শুধু আমি নই, আমাদের এ অঞ্চলের অনেক কৃষক এভাবেই আমন চারা রোপণ করেছিলেন। কিন্তু চারা রোপণের পর বৃষ্টির অভাবে খেত ফেটে গেছে। চারা মরে যাচ্ছে।

 জানি না এবার কি হবে?

উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা কনক রায় জানান, বৃষ্টির অভাবে আমন চারা রোপণে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। ঈদের পর বৃষ্টি হওয়ায় খেত নিয়ে দুশ্চিন্তার কারণ নেই। তবে উঁচু, বালুময় জমিতে পানি না থাকায় কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। বদরগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাহবুবর রহমান জানান, আমন ধানের চারা রোপণে চলতি বছর এ উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। আশা করছি, কাঙ্ক্ষিত ফসল উৎপাদনে সক্ষম হব।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow