Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:১০
দুর্বার আন্দোলনের হুঁশিয়ারি
সারা দেশে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত
প্রতিদিন ডেস্ক
bd-pratidin

দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গতকাল সারা দেশে নানা কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি। কোথাও কোথাও পুলিশের বাধা ও আওয়ামী লীগ সমর্থকদের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। কর্মসূচি চলাকালে বক্তারা সরকারের সব ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে বেগম জিয়াকে কারামুক্ত করে জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে দুর্বার আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন। নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের খবর—

শরীয়তপুর : পৌর এলাকার ধানুকায় নাসির উদ্দিন কালুর বাসভবনে প্রতিষ্ঠবার্ষিকীর অনুষ্ঠান চলছিল। বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা অনুষ্ঠানে হামলা চালায়। এ সময় বিএনপির নেতা কর্মীদের সঙ্গে তাদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। এতে আহত হন উভয়পক্ষের অন্তত ২৫ জন। বেলা দেড়টার দিকে জেলা বিএনপির সভাপতি অনুষ্ঠাস্থল থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করলে যুবলীগ-ছাত্রলীগ পুনরায় তাকে ধাওয়া করে। বিকাল ৪টা পর্যন্ত তিনি জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে অবরুদ্ধ ছিলেন। সিরাজগঞ্জ : ভাসানী মিলনায়তনে বেগম রুমানা মাহমুদের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন অ্যাড. মোকাদ্দেছ আলী, সাইদুর রহমান বাচ্চু, মজিবর রহমান লেবু, আজিজুর রহমান দুলাল। অন্যদিকে পাড়া মহল্লা থেকে নেতা-কর্মীরা মিছিল নিয়ে আসার সময় রাস্তার মোড়ে মোড়ে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বাধা দেয় এবং তাদের হামলায় পাঁচ কর্মী আহত হয়েছে বলে দাবি বিএনপির। বগুড়া: শহররে নবাববাড়ীতে দলীয় কার্যালয়ের সামনে ভিপি সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে অ্যাড. একেএম মাহবুবুর রহমান, হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, জয়নাল আবেদীন চাঁন, রেজাউল করিম বাদশা প্রমুখ বক্তৃতা করেন। এদিকে কর্মসূচিতে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত হয়েছেন যুবদলের তিন কর্মী। ময়মনসিংহ : নগরীর নতুন বাজার দলীয় কার্যালয়ে কেক কাটা ও আলোচনা সভার আয়োজন পুলিশি বাধায় পণ্ড হয়ে যায়। পরে মোশাররফ হোসেনের বাসভবনে প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়। এতে বক্তব্য রাখেন মোশাররফ হোসেন, আবু ওয়াহাব আকন্দ।  লালমনিরহাট : জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে র‌্যালি বের হলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে বিএনপি কার্যালয় সামনে অ্যাড. ফজলুল হকের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন হাফিজুর রহমান বাবলা, মমিনুল হক, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। সুনামগঞ্জ : শহরের পুরাতন বাস স্টেশন থেকে র‌্যালি বের হয়ে কিছুদূর যাওয়ার পর বাধা দেয় পুলিশ। সেখানেই সংক্ষিপ্ত সমাবেশে করে বিএনপি। এ সময় বক্তব্য রাখেন, কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, নুরুল ইসলাম নুরুল। নাটোর : শহরের অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ শুরু করলে পুলিশ বাধা দেয়। বাধার মুখে তারা আলোচনা সভা না করেই স্থান ত্যাগ করেন। পরে আলাইপুরস্থ জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে আলোচনা সভায় শহিদুল ইসলাম বাচ্চুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন আমিনুল হক। জামালপুর : স্টেশন রোডে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ ও আলোচনা সভায় অ্যাড. ওয়ারেছ আলী মামুন, আমজাদ হোসেন, শহিদুল হক খান দুলাল, লিয়াকত আলী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এছাড়া শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে শামীম আহমেদ পৃথকভাবে আলোচনাসভা ও রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করেন। খাগড়াছড়ি : জেলা দলীয় কার্যালয়ে ওয়াদুদ ভুঁইয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতারা বক্তৃতা করেন। তারা কঠোর আন্দোলনের মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করার হুঁশিয়ারি দেন। কিশোরগঞ্জ : সরকারি গুরুদয়াল কলেজমাঠে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মাজহারুল ইসলাম, আমিরুজ্জামান, অ্যাড. শরীফুল ইসলাম শরীফ, খালেদ সাইফুল্লাহ সোহেল প্রমুখ। খুলনা : দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে বক্তৃতা করেন নজরুল ইসলাম মঞ্জু ও মনিরুজ্জামান মনি। বক্তারা ইভিএম ভোট পদ্ধতির কঠোর সমালোচনা করে বলেন, সরকারের কোনো ষড়যন্ত্রই কাজে আসবে না। চুয়াডাঙ্গা : স্থানীয় শ্রীমান্ত টাউন হলে সভায় সভাপতিত্ব করেন লে. কর্নেল কামরুজ্জামান (অব.)। প্রধান অতিথি ছিলেন ওয়াহেদুজ্জামান বুলা। এর আগে র‌্যালি বের করতে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। এদিকে অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস ও শরিফুজ্জামানের অনুসারীরা পৃথকভাবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেছে। নেত্রকোনা : শহরের ছোটবাজারে দলীয় কার্যালয়ে পুলিশি বেষ্টনির মধ্যে সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। নোয়াখালী : জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে আলোচনা সভায় অন্তত পাঁচ হাজার নেতাকর্মী যোগ দেন। এর আগে শহরে বিশাল শোভাযাত্রা বের করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মো. শাহজাহান। সভাপতিত্ব করেন গোলাম হায়দার। রংপুর : গ্রান্ডহোটল মোড়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন রইচ আহমেদ, সাহিদা রহমান জোত্স্না, মামুন অর রশীদ মামুন, আমিনুল ইসলাম রাঙ্গা প্রমুখ। ফেনী : দাগনভূঞায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর মঞ্চ গতকাল ভোরে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলা বিএনপির সভাপতি আকবর হোসেন এ জন্য ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের দায়ী করেছেন। তবে এ ঘটনার সঙ্গে তাদের সম্পৃক্ততা নেই বলে দাবি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদিন মামুনের।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow