Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৪২
জিন তাড়ানোর নামে হত্যা!
নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া
bd-pratidin

বগুড়ার গাবতলীতে জিন তাড়ানোর নামে বুকের উপর উঠে লাফালাফি করে নৈশপ্রহরী মোফাজ্জল হোসেন মক্কাকে (৫০) হত্যার অভিযোগ উঠেছে কবিরাজের বিরুদ্ধে। গাবতলী উপজেলার মহিষাবানের ধোড়া গ্রামে বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে দুই কবিরাজ ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা পলাতক রয়েছে।

গাবতলীর বাগবাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ওসি সোহেল রানা জানান, ধোড়া পূর্বপাড়া গ্রামের বাদশার মেয়ে জেমির (১২) জ্বর হলে ওষুধ খাওয়ায়। তিন দিনেও জ্বর না কমায় তাকে নিয়ে মহিষাবান পূর্বপাড়ার কবিরাজ নজরুল ইসলাম ভেটুর স্মরণাপন্ন হয়। শিশুটিকে জিনে ধরেছে জানিয়ে কবিরাজ বলেন, এ জিন ছাড়াতে তুলা রাশির জাতক লাগবে। বিষয়টি জানানো হয় গোলাবাড়ি বণিক সমিতির নৈশপ্রহরী তুলা রাশির জাতক মোফাজ্জল হোসেন মক্কাকে। তিনি কিশোরীর জিন ছাড়ানোর স্বার্থে চলে আসেন। ভেটু অপর কবিরাজ ধোড়া পূর্বপাড়ার জয়নাল আবেদীনসহ ৮-১০ জনকে নিয়ে বুধবার রাত ১০টার দিকে বাদশার বাড়ি যান। তারা জেমি ও মক্কাকে পাশাপাশি শুইয়ে জিন তাড়ানোর উদ্যোগ নেন। মন্ত্র পড়তে শুরু করলে মক্কা ছটফট করতে থাকেন। এ সময় কবিরাজরা বলেন, জেমির জিন মক্কার শরীরে ঢুকেছে; একটু পর তাকে ছেড়ে যাবে। তখন কবিরাজ মক্কার বুকের উপর উঠে লাফিলাফি করতে থাকেন। একপর্যায়ে মক্কা নিস্তেজ হয়ে গেলে তাকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেলে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক মক্কাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ জানায়, লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

up-arrow